কালজয়ী গানের অমর গীতিকবি ‘মাসুদ করিম’…

“যখন আমি থাকবো নাকো
আমায় রেখো মনে
ও বন্ধু ওগো আমায় খুঁজো
সুরের আলাপনে।”
– ‘মাসুদ করিম’ বাংলাদেশ সঙ্গীতাঙ্গনের এক অবিস্মরণীয় নাম। তিনি একজন প্রতিশ্রুতিশীল গীতিকবি ও বড় ভাল মনের মানুষ ছিলেন। হৃদয় উজার করে দরদ দিয়ে লিখে গেছেন অমর গানের কথা। মাসুদ করিমের গানের বানী সাধনাময় সঙ্গীতকে করেছে আরো শ্রুতিমধুর। এদেশের অসংখ্য গুণী শিল্পী মাসুদ করিমের গান গেয়ে যেমন মাসুদ করিমকে করেছেন নন্দিত, তেমনি তারাও হয়েছেন ধন্য। দেশের বরেণ্য সঙ্গীতশিল্পী ‘ফেরদৌসি রহমান, সাবিনা ইয়াসমিন, রুনা লায়লা, খুরশীদ আলম, আব্দুল জব্বার, মাহমুদুন নবী, কুমার শানু( ভারত), মেহেদী হাসান(পাকিস্তান), দিলারা আলো সহ অনেক শিল্পীই মাসুদ করিমের লেখা গান গেয়েছেন। গীতিকার মাসুদ করিম ২৭ই জুন কুষ্টিয়ায় জন্মগ্রহণ করেন। শৈশব থেকেই তিনি স্বপ্ন সাধনায় নিজেকে প্রতিষ্ঠা করেন। মাসুদ করিম ১৯৫৫ সাল থেকে গান লেখা শুরু করেন। তিনি প্রথম কর্মজীবনে ঢাকা ও চট্রগাম রেডিওতে প্রোগ্রাম অফিসার ছিলেন। তিনি ‘৬০, ‘৭০, ও ‘৮০ দশকের চলচ্চিত্রের কালজয়ী গানের গীতিকবি ছিলেন। মাসুদ করিমের সহধর্মিণী সঙ্গীতশিল্পী ‘দিলারা আলো’। তিনি ১৯৬৫ তে চট্রগ্রাম কর্মরত অবস্থায় বিয়ে করেন।
দিলারা আলো ঢাকা, চট্রগ্রাম রেডিও এবং বাংলাদেশ টেলিভিশন এর নিয়মিত শিল্পী। দিলারা আলো ‘৬০ ও ‘৭০ দশকের অডিও এবং প্লেব্যাক এর ও জনপ্রিয় শিল্পী ছিলেন। বর্তমানে দিলারা আলো পরিবার নিয়ে কানাডায় স্থায়ীভাবে বসবাস করছেন। দূরপ্রাচ্য থেকেও তিনি ভুলতে পারেনি বাংলা গানের সুর, ভুলতে পারেনি মাসুদ করিমের স্মৃতিকথা। তাইতো তিনি সঙ্গীতাঙ্গনকে জানিয়েছেন ওনার স্মৃতিপট ও সঙ্গীতকে ভালোবাসার কথা। মাসুদ করিমের স্মৃতি নিয়ে ওনারা গড়েছেন ‘মাসুদ করিম মেমোরিয়াল ফাউন্ডেশন’ নামে একটি প্রতিষ্ঠান। মাসুদ করিমের গান কোন প্রজন্মেই ভোলার নয়। তিনি গান লিখে যেমন পেয়েছেন অসংখ্য মানুষের ভালোবাসা তেমনি পেয়েছেন জাতীয় পুরস্কার সহ সম্মানী পুরস্কার।
মাসুদ করিমের লেখা বিখ্যাত গানগুলো হল:
১. আমি রজনীগন্ধা ফুলের মতো, গন্ধ বিলিয়ে যাই
২. যখন থামবে কোলাহল ঘুমে নিঝুম চারদিক।
৩. তোমরা যারা আজ আমাদের ভাবছ মানুষ কিনা
৪. যদি ভালবেসে কাছে এলে বন্ধু
৫. তুমি সন্ধ্যা আকাশের তারার মতো
৬. জোনাক জোনাক রাত
৭. সন্ধ্যার ছায়া নামে এলোমেলো হাওয়া
৮. তন্দ্রা হারা নয়ন
৯. শিল্পী আমি তোমাদেরই গান শোনাবো
১০. তুমি আমি দুজনাতে
১১. নেই নি:শ্বাসের বিশ্বাস
১২. শত্রু তুমি বন্ধু তুমি, তুমি আমার সাধনা
১৩. পথের সাথী পথে নামগো আজ
১৪. দুটি চোখে চোখ রেখে আমারে সুধালে
১৫. মেরী জিন্দেগী মেরে পাছ( পাকিস্তানী গান- মেহেদী হাসান)
১৬. তুমি যে আমার ভালবাসা
১৭. মনে কি পড়ে একদিন আমিও ছিলাম
১৮. আমাদের পৃথিবীতে তোমারা দুজন
১৯. মন তো নয় আমার আয়না
২০. তুমি সন্ধ্যা আকাশের তারার মত
২১. কিছু বলো কিছু বলো
২২. বাতাসে তোমার সংলাপ শুনি
২৩. ঐ আকাশ ঘিরে
২৪. যদি নীল সাগরের মুক্ত তুমি চাও
২৫. যখন আমি থাকবো নাকো আমায় রেখো মনে
” এমন অসংখ্য কালজয়ী গানের গীতিকবি ছিলেন মাসুদ করিম। ওনার গানের সুরকার ছিলেন বাংলাদেশের বিখ্যাত সুরকারগণ। তাঁরা হলেন ‘সুবল দাস, সমর দাস, আলাউদ্দিন আলী, আলম খান, খন্দকার নুরুল আলম, রাজা হোসেন খান, এ হামিদ, আমির আলী, আজমল হুদা মিঠু সহ অনেকে। মাসুদ করিম বাংলাদেশের সঙ্গীতাঙ্গনকে দিয়ে গেছেন অমৃত গানের ছন্দ। সঙ্গীতপ্রিয় মানুষদের গানের মায়ায় বেঁধে তিনি ১৯৯৬ সালের ১৬ই নভেম্বর চলে গেলেন পরপারে। রেখে গেলেন কত স্মৃতির মনিহার। আমরা আজ ওনার দোয়া করি, ওনার আত্মার মাগফিরাত কামনা করি। -মোহাম্মদ আমিন আলিফ…
অলংকরন – মাসরিফ হক…

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *