সঙ্গীতের উৎসবে মুখরিত ‘সিম্ফনি-চ্যানেল আই মিউজিক অ্যাওয়ার্ড’ এ পুরস্কৃত বিজয়ীরা…

“এ যেন সৃষ্টি সুখের উৎসব
সুর – ছন্দের কলরব
দেখো কত গানের পাখীরা উড়ে
সুরের বসন্ত যেন এলো ফিরে।”
– সৃষ্টি!  একটি অস্তিত্বের একটি হৃদয়ের উজাড়িত কাব্য। একটি স্বপ্ন একটি প্রার্থনায় থাকে কতো আকুল- বেকুলতার গল্প। কোন সৃষ্টিই ক্ষুদ্র নয়, প্রত্যেক সৃষ্টিই অনেক সাধনা আর সংগ্রামের পর জন্ম। সঙ্গীত ঠিক তেমনই এক সাধনা এবং সংগ্রাম। যদি কোন শিল্পীর সাধনা বা সৃষ্টি মর্যাদা পায় কোন আর্শিবাদে বা সম্মানীতে তবে সেই শিল্পীর দায়িত্ব এবং নির্মাণ  বৃদ্ধি পায়। সিম্ফনি – চ্যানেল আই মিউজিক অ্যাওয়ার্ড এমনই একটি প্রেরণা মূলক কাজ করছেন যা দ্বারা একজন শিল্পীর মূল্যায়ন জানবে জাতি। এবং বাড়বে শিল্পীদের আত্মসম্মানবোধ ও নৈতিক দায়িত্ব। সুর ও সঙ্গীতের এ যেন মহা উৎসব। সবাই আনন্দিত, ১১তম বারের মতো আয়োজন করা হলো ‘সিম্ফনি-চ্যানেল আই মিউজিক অ্যাওয়ার্ড’। গত শুক্রবার রাজধানীর একটি পাঁচ তারকা হোটেলে জমকালো অনুষ্ঠানের মধ্য দিয়ে বিজয়ী ব্যক্তিদের হাতে তুলে দেওয়া হয় পুরস্কার। সংগীতশিল্পী, গীতিকার, নবাগত শিল্পী, শব্দ প্রকৌশলী, সংগীত পরিচালক, কাভার ডিজাইন, মিউজিক ভিডিওসহ আরও বেশ কয়েকটি বিভাগের সেরাদের সম্মানিত করা হয় এই আয়োজনে; বিচারকদের রায়ে চূড়ান্ত হয় তা। শ্রোতাদের ভোটে দেওয়া হয় ব্যান্ড, আধুনিক গান, ছায়াছবির গান, নবাগত শিল্পীর পুরস্কার। ছিল আজীবন সম্মাননাও। এবারের আসরে আজীবন সম্মাননা পেয়েছেন কিংবদন্তি গায়িকা শাহনাজ রহমতুল্লাহ। পুরস্কার প্রদান অনুষ্ঠানের পাশাপাশি ছিল দেশের জনপ্রিয় শিল্পীদের বিভিন্ন পরিবেশনা।
♦ সমালোচক পুরস্কার
সংগীত পরিচালক: আলাউদ্দীন আলী
রবীন্দ্রসংগীত: অদিতি মহসিন
নজরুলসংগীত: ইয়াসমিন মুশতারী
লোকগান: মমতাজ
আধুনিক গান: কনকচাঁপা
উচ্চাঙ্গসংগীত: প্রিয়াংকা গোপ
ছায়াছবির গান (যৌথভাবে): কোনাল ও
বেলাল খান
গীতিকার: রবিউল ইসলাম জীবন
ব্যান্ড: শিরোনামহীন
মিউজিক ভিডিও নির্মাতা: তানিম রহমান
নবাগত শিল্পী: নির্বাচিতা
শব্দ প্রকৌশলী: আজম বাবু
কাভার ডিজাইন: পান বি

♦ পপুলার চয়েস
আধুনিক গান: ফাহমিদা নবী
ব্যান্ড: অবস্কিওর
ছায়াছবির গান: সামিনা চৌধুরী
নবাগত (যৌথভাবে): লুইপা ও ঐশী।
অলংকরন – গোলাম সাকলাইন…

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

%d bloggers like this: