দুস্থ ও অসুস্থ শিল্পীদের পাশে রেশ ফাউন্ডেশন…

– সঙ্গীত শুধু মাত্র সুর এবং কথাতেই সীমাবদ্ধ নয়, সঙ্গীত মানবতার সেবায় অর্থাৎ অসহায় মানুষের কল্যাণে চিরন্তন। যুগযুগ ধরেই এদেশের সঙ্গীত শিল্পীরা বিভিন্ন একতা বন্ধনে অনেক দুর্যোগ মোকাবেলা করেছেন এবং অনেক দুস্থ ও অসুস্থ শিল্পী এবং সাধারণ মানুষের পাশে দাঁড়িয়েছেন। দেশের শিল্পী, সুরকার, গীতিকার, সঙ্গীত আয়োজকগণ শুধু মিউজিক নিয়েই ভাবেন না তারা দেশে ও দেশের মানুষের জীবন এবং দায়িত্ব নিয়ে ভাবেন। যার প্রমাণ করেছেন এবার রেশ ফাউন্ডেশন। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুক এর সঙ্গীত বিষয়ক তথ্যাদিগ্রুপ ‘রেশ’ যার কার্যক্রম পরিচালনা শুরু করেছিলেন দেশের সুনামধন্য সবার প্রিয় সঙ্গীত ব্যক্তিত্ব ফরিদ আহমেদ। রেশ গ্রুপ এর সদস্যসংখ্যা ছয় হাজার এর উপরে, এখনে সবাই সঙ্গীতপ্রেমী। বর্তমান মানবসেবায় এই গ্রুপটি সংক্রিয় ভূমিকা রাখতে যাচ্ছেন এবং বর্তমানে রেশ ফাউন্ডেশন এর  কার্যক্রম পরিচালনা করছেন দেশের গুনী কয়েকজন সঙ্গীত ব্যক্তি। সবার সাহস ও সহযোগীতায় দেশের দুস্থ ও অসুস্থ শিল্পীদের পাশে দাঁড়ানোর উদ্দেশ্য নিয়ে যাত্রা শুরু করলো ‘রেশ ফাউন্ডেশন’। বাংলা গানের কিংবদন্তি সংগীতশিল্পী সাবিনা ইয়াসমীন এর নেতৃত্ব ও সভাপতিত্বে কার্যক্রম পরিচালনা করবে এ ফাউন্ডেশন। ফাউন্ডেশনের সাধারণ সম্পাদক হিসেবে আছেন রেশ এর উদ্যোক্তা ও সংগীত পরিচালক ফরিদ আহমেদ।
দেশীয় সংগীতের প্রচার ও প্রসার, বিশুদ্ধ সংগীত পরিচর্যা, সংগীতের সঙ্গে যুক্ত পেশাজীবী মানুষের জীবনতথ্য, যোগাযোগ ও কীর্তির কথা, স্বীকৃতি ও স্বাতন্ত্র্যের কথা, আনন্দ-বেদনা, সুখে-দুঃখে তাঁদের পাশে থাকা, পাশে গিয়ে দাঁড়াতে ঐক্যবদ্ধ উদ্যোগ গ্রহণের মতো লক্ষ্য সামনে রেখে সংগীত পরিচালক ফরিদ আহমেদ গত বছরের ১৩ এপ্রিল সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম ফেসবুকে রেশ নামে একটি গ্রুপ গড়ে তোলেন। এতে দেশের কণ্ঠশিল্পী, গীতিকবি, সুরকার-সংগীত পরিচালক ও যন্ত্রসংগীতশিল্পীদের ফটো আর্কাইভ করা হয়েছে। এতে রয়েছে তাঁদের ছবি ও সংক্ষিপ্ত পরিচিতি।
রেশ ফাউন্ডেশনের পরিচালনা পর্ষদে আরও রয়েছেন- যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক হাসান মতিউর রহমান (গীতিকবি), সহসভাপতি ফরিদা ফারহানা (গীতিকবি), নির্বাহী সদস্য মোহাম্মদ মনিরুজ্জামান (যন্ত্রসংগীতশিল্পী), শাহনাজ বাবু (কণ্ঠশিল্পী), রবিউল ইসলাম জীবন (গীতিকবি ও সাংবাদিক) ও রিয়াজ আহমেদ (আইটি বিশেষজ্ঞ) এবং কোষাধ্যক্ষ জামালউদ্দীন চৌধুরী (সংগঠক)।
প্রসঙ্গত, রেশ ফাউন্ডেশন সূত্রে জানা যায়, গত ৪ জুন সরকারিভাবে এটি নিবন্ধিত হয়েছে। রেশ এর জয়যাত্রা এবং সু’চিন্তা স্বনির্ভর হোক। রেশ ফাউন্ডেশন এর সকল আয়োজক এর প্রতি শুভকামনা ও দোয়া রইলো।
অলংকরন – গোলাম সাকলাইন…

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

%d bloggers like this: