নতুন কিছু করার উদ্যোমে শুরু হয় পথচলা – জয়ী জামান…

সময়টা ২০০৯, নতুন কিছু করার উদ্যোমে শুরু হয় জয়ী জামান এর পথচলা। বয়স যখন তার ৪ বছর তখন থেকেই পারিবারিক ভাবে গানের হাতেখড়ি নেন ‘ওস্তাদ আক্তার সাদমান’ এর কাছ থেকে। ওনার কাছ থেকেই ক্লাসিক্যাল সংগীতের তালিম নেওয়া। দীর্ঘ ৮ বছর ওনার কাছ থেকে সংগীত চর্চা করেন জয়ী জামান। শৈশব থেকেই সংগীতের প্রতি তার ছিলো প্রেম এবং বিনম্র শ্রদ্ধা। সবসময়ই সংগীতকে নিয়ে কিছু করার লক্ষ্য ছিলো। যার ফলে আজ সে সুপরিচিত একজন গুনী শিল্পী। প্রথম কাজ ছিলো ২০০৯ – এ অপ্রকাশিত কিছু এ্যালবাম এবং চলচ্চিত্রে। এ্যালবাম গুলো হলো ‘মেঘা’ এবং ‘ঝালমুড়ি’। একটি টেলিফিল্ম ‘অচিন মানুষ’ এ তিনি মিউজিক কম্পোজিশন করেন, গানটি কন্ঠ দিয়েছেন ‘সুমি সবনম’। ‘ওয়ান ওয়ে রোড’ চলচ্চিত্রেও সংগীত পরিচালনা করেন তিনি।

২০১২ সালের দিকে তিনি বেশ কিছু প্রকাশিত জনপ্রিয় মিক্সড এ্যালবামে কাজ করেন। ‘এক জীবন-২’ এ রয়েছে তার একটি
গান ‘চলো দুজনে হারাই’। কাজী শুভর মনেরই আকাশ এ্যালবামে রয়েছে একটি গান, শচী শামস এর কম্পোজিশনে হিপ হপ ‘মেট্রো ক’ এ্যালবামে গান করেছেন তিনি, ‘এবং ভালোবাসা’ এ্যালবামে ভালোবাসা মধুময়, ‘এক্সকিউজ মি’ চলচ্চিত্রের ‘এক আকাশে উড়ি’ এবং বাসুদেব মিক্সড এ্যালবামে করেছেন দেশের গান। ২০১৩ সালে মাহমুদ জুয়েল এর প্রযোজনায় একটি এ্যালবামে রিজভী ওয়াহিদ এর সাথে ‘চোখ দিয়ে বলো কথা’ গানটি গান। চলতি বছরে একটি জিঙ্গেল করেন ইরফান আটা ময়দা সুজি এবং শচি শামস এর কম্পোজিশনে একটি মিক্সড অ্যালবামে ‘অন্য স্বর্গিক জ্বালা’ গানটি গেয়েছেন তিনি। তার মায়াবী কন্ঠ দেশের প্রত্যেকটি সংগীত প্রিয় মানুষের কাছে প্রিয় হয়ে উঠবে এই আশায় আশাবাদী তিনি। – অন্তু সাহা…
অলংকরন – মাসরিফ হক…

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

%d bloggers like this: