প্রানের সুরে মাতিয়ে শেষ হলো ঢাকা আন্তর্জাতিক ফোক ফেস্ট ২০১৬…

বর্নাট্য এক আয়োজনের মাধ্যমে বৃহঃস্পতিবার ১০ই নভেম্বর সন্ধ্যায় দ্বিতীয়বারের মতো অনুষ্ঠিত হলো ঢাকা আন্তর্জাতিক লোকসংগীত উৎসব ২০১৬।

উৎসবের প্রথম দিনেই প্রচুর সংখ্যক দর্শকের উপস্থিতিতে মুখরিত হয়ে ওঠে আর্মি স্টেডিয়াম। সন্ধ্যার পর থেকেই ধীরে ধীরে দর্শকদের আনাগোনা বাড়তে থাকে উৎসব প্রাঙ্গণে।

লোকসংগীত উৎসব ২০১৬-র উদ্ভোধন করেন অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আব্দুল মুহিত। এছাড়াও সেখানে উপস্থিত ছিলেন ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশনের মেয়র আনিসুল হক, গ্রামীণ ফোনের প্রধান নির্বাহী ইয়াসির আজমল, মাক্রোসফটের বাংলাদেশ প্রধান সনিয়া কবির, ঢাকা ব্যাংকের ব্যবস্থাপনা পরিচালক সৈয়দ মাহবুবুর রহমান এবং সান ইভেন্টসের প্রধান অঞ্জন চৌধুরী।vfh

অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আব্দুল মুহিত সকলের উদ্দেশ্যে বলেন, ‘স্বভাবগতভাবেই আমরা গান ও নাচের প্রতি সহজেই আকৃষ্ট হই। এটা আমাদের সংস্কৃতির অংশ। তবে আমাদের রুচি যথেষ্ট পরিশীলিত। এই রুচি বিকাশে আশা করি আন্তর্জাতিক এই লোকসংগীত উৎসব একটি বিরাট মাধ্যম হিসেবে কাজ করবে আশা করি। এমন ধরনের একটি অনুষ্ঠান আয়োজনের জন্য উদ্যোক্তাদের ধন্যবাদ জানাই। উৎসব উদ্ভোধনের পর অতিথিদের হাতে ক্রেস্ট তুলে দেন সান ইভেন্টসের প্রধান অঞ্জন চৌধুরী।

উৎসবের প্রথমদিনে একক সংগীত পরিবেশনা করেন বাংলাদেশের আবদুর রহমান বাউল, টুনটুন বাউল, ফরিদা ইয়াসমিন, পাকিস্তানের জাভেদ বশির। ভারতের রাজু দাস বাউল এবং যুক্তরাজ্যের সাইমন থ্যাকারস সাভারা কান্তি একসঙ্গে মাতিয়ে তোলেন উৎসব প্রাঙ্গণ। সর্বশেষে সংগীত পরিবেশন করেন বাংলা গানের ফোক সম্রাজ্ঞী খ্যাত মমতাজ বেগম। জাভেদ বশির এবং মমতাজ বেগমের গানের সঙ্গে তরুণরা কণ্ঠ মিলিয়ে মুখরিত করে তুলে আর্মি স্টেডিয়াম। সঙ্গে সঙ্গে ‘ওয়ান মোর’,‘ওয়ান মোর’ বলে আওয়াজ তুলে তরুণরা। মমতাজ ভক্তদের অনুরোধে আরো কয়েকটি গান পরিবেশন করেন। যে কারণে প্রথমদিনের সমাপ্তি ঘটে নির্ধারিত সময়ের বেশ কিছক্ষন পরে।ngdhd

শুক্রবার উৎসবটির দ্বিতীয় দিনের প্রধান আকর্ষণ ছিল ভারতের জনপ্রিয় কণ্ঠশিল্পী কৈলাশ খের এর সঙ্গীত পরিবেশনা। বাংলাদেশী শিল্পীদের মধ্যে সঙ্গীত পরিবেশন করেন জালাল ও লতিফ সরকার। তাছাড়াও ছিলেন বাউল শফি মণ্ডল আর লাবিক কামাল গৌরবের যুগলবন্দি। নিজেদের গান নিয়ে অনুষ্ঠানটি মাতিয়েছিল ভারতের লোকব্যান্ডদল ইন্ডিয়ান ওশেন। লোকজ সুরের সঙ্গে ফ্লামেঙ্কো নাচের যুথবদ্ধ পরিবেশনা করেছিল স্পেনের কারেন লুগো ও রিকার্ডো মোরোর।

তিন দিনব্যাপী উৎসবটির শেষ দিন শনিবারে সাপ্তাহিক ছুটি হওয়ায় গত ২দিনের মতো শনিবারও মানুষের ঢল নেমেছিল রাজধানীর আর্মি স্টেডিয়ামের ফোক ফেস্ট প্রাঙ্গণে।ifd

দর্শকদের মন মাতাতে মঞ্চে সঙ্গীত পরিবেশনা করেছেন উপমহাদেশের প্রখ্যাত দুই শিল্পী বারী সিদ্দিকী ও পবন দাস বাউল। এই দুজনই ছিল এবারের আসরের সবচেয়ে বড় আকর্ষণ।

এ ছাড়াও নিজস্ব দল নিয়ে উপস্থিত ছিলেন ইসলাম উদ্দিন কিসসাকার ও কৌশিক হোসেন তাপস। পরিবেশনা নিয়ে মঞ্চে আরো উপস্থিত ছিলেন বাংলাদেশের সুনীল কর্মকার, ভারতের নুরান সিস্টার্স, যুক্তরাজ্যের সুশীলা রামান এবং স্যাম মিলস।gdjdhda

অনুষ্ঠানটি প্রতিদিনের মতোই যথারীতি সন্ধ্যা ৬টায় থেকে শুরু হয়েছিল অনুষ্ঠানটি। শেষ দিনের সুরের হাওয়ার সকল দর্শকমহলকে মাতিয়ে শেষ হয়ে গেলো আন্তর্জাতিক লোকসঙ্গীত উৎসব ২০১৬। দর্শকশ্রোতাদের মতে গত বারের থেকে এবারের আসরটি বেশি জাঁকজমকপূর্ণ ছিল। – শাহারিয়ার হাসান…
অলংকরন – গোলাম সাকলাইন…

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

%d bloggers like this: