স্বাধীনতার ৪৫ বছর পর নয়ীম গহরের কাব্য প্রাণ পেলো অজন্তা গহরের কণ্ঠে…

“৪৫ বছর পর….
তোমার অভিমানের নিস্তব্ধতা ভেঙ্গে
আবার জেগে উঠবে এই দেশ
তোমার রচনার সুরের মূর্ছনায় …
তোমার জন্য আমাদের শ্রদ্ধার্ঘ্য”

– শ্রদ্ধেয় নয়ীম গহর বাংলা সঙ্গীতের ইতিহাসে এক অবিস্মরণীয় নাম। যে নামটি মনে হলেই ভেসে উঠে সেই গানের চিরন্তন বানী ‘জন্ম আমার ধন্য হলো মাগো’। স্বাধীনতার দীর্ঘ ৪৫ বছর পর আবার প্রকাশ হলো নয়ীম গহরের নতুন গান ‘একুশ এলো’।

নয়ীম গহরের সু’কন্য সু’কণ্ঠ যাকে দান করেছেন মহান সৃষ্টিকর্তা তিনি অজন্তা গহর। অজন্তা গহর প্রকাশ করতে যাচ্ছেন উনার একক এ্যালবাম ‘একুশ এলো’। এই এ্যালবামে মোট গান রয়েছে সাতটি।

এই এ্যালবামের একটি গান শ্রদ্ধেয় নয়ীম গহরের লেখা। ৪৫ বছর ধরে যেন গান নিষ্প্রাণ ছিল, অমর একুশের ভাই হারানোর কান্না মিশ্রিত, মায়ের অপেক্ষার ব্যথার অস্তিত্ব যে গীতি কবিতায় আজ সেই গান প্রাণ খোঁজে পেলো অজন্তা গহরের কণ্ঠে।
বর্তমান সময়ের জনপ্রিয় তরুণ সুরকার ও সঙ্গীত পরিচালক শেখ শান এর সুর – সঙ্গীতে এই এ্যালবামের বাকি গানগুলো লিখেছেন ‘অজন্তা গহর ১ টি, তানিয়া সুলতানা ২ টি, জাহাঙ্গীর রানা ১টি,এবং সনেট সেন্টু ১টি।
জাহাঙ্গীর রানার লেখা গানটি একবার সলো গেয়েছেন অজন্তা গহর এবং দ্বিতীয় বার সাথে ডুয়েট কণ্ঠ দিয়েছেন শেখ শান।

সম্প্রতি ‘একুশ এলো’ এ্যালবাম এর নয়ীম গহরের লেখা গানটি ‘একুশ এলো’র মিউজিক ভিডিও প্রকাশিত হয়েছে।

‘সেই যে গেল ভাইটি আমার
সাঁঝের কুয়াশায়
আজও আমার মায়ের ঘরে
কান্না শোনা যায়।’

এক মধুর সুরের সাথে গানের কথার সাথে মিল রেখে অনেক দক্ষ ও তৃপ্তিসাধন সম্ভাবনায় গানটির ভিডিও নির্মাণ করেছেন। অমর একুশের স্মৃতিপট ধরে বাংলা বর্ণমালার সজ্জা গাঁথুনিতে নিজের সু’চিন্তার সুবিশাল প্রকাশ করেছেন ভিডিওটির পরিচালক লতা আচার্য্য।

‘একুশ এলো’ এ্যালবামটি ছাড়াও বেশকিছু মিক্সড এ্যালবাম গান করবেন বলে জানিয়েছেন অজন্তা গহর। জনপ্রিয় সঙ্গীতায়োজন বনি আহমেদ এর সঙ্গীত আয়োজনে কাজ করছেন তিনি। এছাড়াও পরিচালক রাজু চৌধুরী পরিচালিত চলচ্চিত্রে গান করতে যাচ্ছেন অজন্তা গহর।

অজন্তা গহর সঙ্গীতাঙ্গনকে জানান, ‘আমি আশাবাদী আমার গান গুলো ভালো লাগবে সবার। কারণ আমি নিজেও অনেক গান শুনি, গানের ভক্ত। তাই অনেক ভেবে অনেক যত্ন করে গান গুলি করেছি। আমার সকল ভালবাসা দিয়ে বাবার গানটি করেছি এবং হৃদয়ের সব দরদ দিয়ে আমি চেষ্টা করেছি গানটি সবার সামনে উপস্থাপন করতে।’

অজন্তা গহরের এই দীর্ঘ সাধনা সবার অন্তরকে ছুঁয়ে যাবে এই প্রত্যাশা আমাদের। সঙ্গীতাঙ্গন এর পক্ষ থেকে অজন্তা গহর এবং একুশ এলো গানের গীতকার, সঙ্গীতায়োজক এবং ভিডিও নির্মাতার প্রতি রইলো শুভকামনা।
অলংকরন – গোলাম সাকলাইন…

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

%d bloggers like this: