Press "Enter" to skip to content

প্রকাশ হলো কিংবদন্তী লাকী আখন্দকে নিয়ে ‘তোমার যত গান’…

“বারে বারে যুগে যুগে
থাকবে তোমারই নাম
লেখা হয়ে আছে বুকেরই পাঁজরে
তোমার যত গান!

ভোলা কি যাবে ‘এই নীল মণিহার’
‘আবার এলো যে সন্ধ্যা’
যাবে না ভোলা ‘আজ আছি কাল নেই অভিযোগ রেখো না’
কত স্মৃতি কত গান বেঁধেছে এই প্রাণ সুরের মিছিল বলে তাই

ভোলা কি যাবে ‘কবিতা পড়ার প্রহর’, ‘যেখানে সীমান্ত তোমার’
যাবে না ভোলা ‘আমায় ডেকো না
ফেরানো যাবে না আর’
কত স্মৃতি কত গান বেঁধেছে এই প্রাণ সুরের মিছিল বলে তাই।”

– কিংবদন্তী লাকী আখন্দ, সবার প্রিয় একজন সঙ্গীতজ্ঞ। দীর্ঘদিন অসুস্থ। উনার গান ভালোবেসে, উনাকে ভালোবেসে সারা পৃথিবীতে ছড়িয়ে আছেন লাকী আখন্দের অসংখ্য শ্রোতাভক্ত। তাদেরই একজন তিতাস কাজী। প্রবাসকালীন জীবনেও ভুলেননি প্রিয় শিল্পী, প্রিয় বাংলা গান। বিদেশের বুকে থেকেও বাংলা গানের প্রতি এমন দরদ সত্যি তা বিস্ময়কর। কাজী তিতাস তার দেশ এবং প্রবাসী বন্ধুদের নিয়ে অনেক যত্ন করে লাকী আখন্দকে ভালোবেসে উনাকে নিয়ে গান বেঁধেছেন শিরোনাম ‘তোমার যত গান’। ইতিমধ্যে গানটির ভিডিও প্রকাশ হয়েছে, অনেক যত্ন করে শিবলী হাসান এবং মিলন বিশ্বাস গানটি মিক্স এবং ভিডিও নির্মাণ করেছে। শ্রদ্ধেয় লাকী আখন্দ যিনি প্রেরণাদানকারী, পথপ্রদর্শক, যার মাঝে খুঁজে পাওয়া যায় আশার আলো, তিনি তেমনই একজন জীবন্ত কিংবদন্তী পুরুষ বিখ্যাত সঙ্গীতজ্ঞ। মানবতার আত্মসম্মানবোধ জাগাতে এবং জীবনের জয়গান গাইতে
গিয়ে স্বপ্নময় মানুষ শিল্পকে মনে প্রাণে ধারণ করেন। সব বাধাকে জয় করার প্রত্যয়ে বেছে নেন নান্দনিক সৌন্দর্য চর্চার পথ। শ্রোতার বিক্ষিপ্ত মনকে যথাস্থানে সন্নিবেশ করতে নিজের গায়কী বা সঙ্গীতকে সবার মাঝে ছড়িয়ে দেন অনেকেই। তেমনি একজন শিল্পী লাকী আখন্দ। দীর্ঘদিন ধরেই অসুস্থ ছিলেন লাকী আখন্দ। উনার অসুস্থতার খবরে সবাই মন বিষণ্ণতায় ছিলেন; কেঁদেছেনও শ্রোতা সহ উনার পাশের শিল্পী এবং সহযোদ্ধারা। সবার ভালোবাসায় এখন তিনি আল্লাহ্‌র রহমতে কিছুটা সুস্থ। লাকী আখন্দের সুরের সুধায় মুগ্ধ হয়ে উনার প্রতি অঘাত ভালোবাসায় মগ্ন হয়ে লাকী আখন্দকে নিয়ে গান বাঁধলেন এক সুরস্বপ্নময়ী গানের মানুষ কাজী তিতাস।

লাকী আখন্দকে নিয়ে এই অপরূপ গানটি লিখেছেন কাজী তিতাস ও সঞ্জয় মূখার্জী। গানটির সুর করেছেন কাজী তিতাস। সঙ্গীতায়োজন করেছেন কাজী তিতাস এবং স্বনামখ্যাত সঙ্গীতপরিচালক, ‘লাবু রহমান, ফুয়াদ নাসের বাবু, বিজয় মামুন এবং মিলন বিশ্বাস’। গানটি গেয়েছেন বাংলাদেশ থেকে শামীম হাসান, এ আই রাজু ও মোল্লা বাবু এবং লন্ডন থেকে সুমন শরীফ, কাজী তিতাস, লাবনী বড়ুয়া ও পরশ মনি।

কাজী তিতাস সঙ্গীতাঙ্গনকে বলেন – সেই ছোটবেলা থেকেই লাকী আখন্দের গান শুনছি, অনেক গেয়েছি।
এখন উনার মতো এতো বড় মানুষের জন্য গান করতে পেরে নিজেকে সু’ভাগ্যবান মনে করছি। আর গানটা যে শুনেছেন সবাই সাধুবাদ জানিয়েছেন।

কাজী তিতাস আরও জানিয়েছেন, প্রধানত আমি লন্ডনে একটি বৃহদায়তন সঙ্গীত প্রদর্শনীর আয়োজন করি যেখানে ইউ কে থেকে সব শীর্ষ গায়ক যোগদান করেন এবং সেই প্রোগ্রাম থেকে অর্জিত টাকা আমরা আমাদের শ্রদ্ধেয় লাকী আখন্দ ভাইকে পাঠানোর পরিকল্পনা করি। এমন সময় আমি মনে করি এই টাকাই যথেষ্ট নয়। তিনি গানের মানুষ গান দিয়ে সম্মান করা উচিত এবং এই গান আমাদের প্রিয় লাকী আখন্দের জন্য একটি বাস্তব উপহার হবে।
লাকী আখন্দের প্রতি কাজী তিতাস এর এই সুর অঞ্জলি অম্লান হোক।
তোমার যত গান আমাদের হৃদয়ে থাকবে প্রজন্ম থেকে প্রজন্ম।
অলংকরন – গোলাম সাকলাইন…

Be First to Comment

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

%d bloggers like this: