Press "Enter" to skip to content

মুরাদ নূর এর সুরে কণ্ঠ দিলেন রাজেশ…

সুরকার এর সুর স্পর্শে সুরকার। এ এক মধুর সুরের ভুবন। রাজেশ ঘোশ, যার সুরের ছোয়ায় সম্পূর্ণ বাংলা সঙ্গীতের সংকীর্ণ মানচিত্রটা বদলে গিয়ে এক সুরধ্বনিতে রূপ নিয়ে ছিলো। সারা বাংলায় একের পর এক জনপ্রিয় গানের জন্ম হয়েছিলো সেই স্বনামধন্য সুরকার রাজেশ ঘোষ এবার কণ্ঠ দিলেন এ সময়ের প্রতিভাবান সুরকার মুরাদ নূর এর সুরে।
সম্প্রতি রাজধানীর একটি রেকর্ডিং স্টুডিওতে চালকদের নিয়ে জনসচেতনতামূলক গানটির কথা লিখেছেন জনপ্রিয় গীতিকবি নীহার আহমেদ।

‘তোমাদের সচেতনতায় নিরাপদ থাকে সড়ক
সাবধানে চালাইও গাড়ী তুমি টাইগার চালক
বাংলাদেশের উন্নয়নে তুমিও নিয়ামক
তোমার কাছে জমা আছে আমজনতার হক
তোমার কাজে ধন্য আমরা শ্রদ্ধা তোমায় চালক’ – এমন কথার গানটি সঙ্গীতায়োজন করেন মুশফিক লিটু।

এ প্রসঙ্গে মুরাদ নূর বলেন – বরাবর’ই জনসচেতনতামূলক কাজ করে দেশেকে সমৃদ্ধ করতে পছন্দ করি, টাইগার সিমেন্ট কর্তৃপক্ষ আমাকে প্রয়োজন মনে করাতে তাদের প্রতি কৃতজ্ঞ। অগ্রজ রাজেশ দা’র গায়কীটা আমার প্রয়োজন ছিলো, দাদাকে বিনম্র শ্রদ্ধা। কবি নীহার আহমেদ আমার পাগলামী ভালো বুঝেন, চাইলেই লেখনীতে আমার চাহিদামতো শব্দ লেখতে পারেন, যাতে গান হয় স্বচ্ছ। দুর্ঘটনারোধে যে যে যার যার জায়গা থেকে সচেতন হলেই সমৃদ্ধ হবে বাংলাদেশ।
রাজেশ ঘোষ বলেন – অন্যকে গাওয়াতে যেয়ে নিজের আর গাওয়া হয়ে ওঠে না, মুরাদ নূর এর জনসচেতনতামূলক কাজটির সুযোগ হাতছাড়া করবো না বলেই গাওয়া। সবাই সচেতন হয়েই গড়বো বাংলাদেশ।
এ সম্পর্কে নীহার আহমেদ বলেন–গাড়ি চালকদের নিয়ে জনসচেতনামূলক একটি গান করার পরিকল্পনার কথা সুরকার মুরাদ নূর যখন আমাক বললেন, তখনই আমার মনে হলো কাজটি অবশ্যই করা উচিত। তারপর গানের ভাবনা নিয়ে বেশ কয়েক দিন মুরাদ নূর এর সাথে বসে কথা ফাইনাল করেছি। গানটি লিখতে পারার মধ্য দিয়ে একটি সামাজিক কাজে সম্পৃক্ত হতে পেরে ভালো লাগছে।
আগামী ৬মে টাইগার সিমেন্ট চালক সম্মেলনের মাধ্যমে গানটি প্রকাশিত হবে। উল্লেখ্য সুরকার রাজেশ ঘোষ প্রায় দশ বছর আগে “পাপী” শিরোনামের একটি মিশ্র এ্যালবামে সর্বশেষ গান গেয়েছিলেন।

রাজেশ ঘোষ, মুরাদ নূর এবং নীহার আহমেদ সঙ্গীতের অগোছালো সময়েও তারা হাল ছাড়েননি। বিশুদ্ধ, সুন্দর সঙ্গীত সৃষ্টির লক্ষ্য নিয়ে তারা কাজ করে যাচ্ছেন সঙ্গীত যোদ্ধা এবং সঙ্গীত শ্রমিক হয়ে। তাদের অবদান সঙ্গীতের মানচিত্রে অম্লান হয়ে থাকুক এই শুভকামনা আমাদের।
অলংকরন – গোলাম সাকলাইন…

Be First to Comment

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

%d bloggers like this: