সুরের ভুবনে এখনো নন্দিত ফরিদ আহমেদ…

সেই আশির দশক থেকেই বরেণ্য সঙ্গীতপরিচালকদের সঙ্গী হয়ে কাজ করেছেন স্বনামধন্য সঙ্গীতপরিচালক ফরিদ আহমেদ। বাংলাদেশ টেলিভিশন এর ম্যাগাজিন অনুষ্ঠান ‘ইত্যাদি’ এর সূচনা সঙ্গীতটি শুনলে এখনো মানুষের মনে এক অন্য অনুভূতি ফিরে আসে, এই প্রিয়চেনা সূচনা সঙ্গীতের স্রষ্টা ফরিদ আহমেদ। নাটক, ম্যাগাজিন, এ্যালবাম, চলচ্চিত্রে সফলতার সঙ্গে কাজ করতে করতে এখনো সুরের ভুবনে নন্দিত ফরিদ আহমেদ।
বর্তমানে তিনি সঙ্গীত পরিচালনার পাশাপাশি সঙ্গীতের প্রচার এবং সঙ্গীতকে বাঁচিতে রাখতে ফাউন্ডেশন গ্রুপ ‘রেশ’ এবং বিভিন্ন কল্যাণকর পরিকল্পনা নিয়ে দায়িত্ববোধ এর সাথে কাজ করছেন।

এখন তিনি চলচ্চিত্র, নাটক এবং এ্যালবাম এর সঙ্গীতপরিচালনা নিয়ে ব্যস্ত।

ফরিদ আহমেদ সঙ্গীতাঙ্গনকে জানান, আগামী ঈদকে নিয়ে কিছু কাজ করছি।
নাটক সহ এ্যালবাম এর কাজ করছি।
দুটি নাটক এর আবহ সঙ্গীতের কাজ করছি, একটির নাম সংগ্রাম। এই সংগ্রাম মানে যুদ্ধ নয়। সং – গ্রাম। গ্রামের এক ধরনের জনগোষ্ঠী নিয়ে নির্মিত। অন্যটির নাম ক্যাট হাউজ।

জনপ্রিয় সঙ্গীতশিল্পী শাহনাজ বাবুর মর্ডান ফোক ধাচের একটি এ্যালবাম এর কাজ করছি।
এবং আরেকটি এ্যালবাম কাজ করছি আসিফ আকবর এর। ‘ফরিদ আহমেদ ফিচারিং আসিফ’…

এই এ্যালবামে ছয়টি গান থাকবে এবং আসিফ এর ছয়জন নারী কণ্ঠশিল্পী থাকবে। দিলশাদ জাহান কণা, সিথি, রন্টি দাস, পলি সায়ন্তনী সহ আরো দু’ জন থাকবে। ইতিমধ্যে কিছু গানের কাজ শেষ।

ফরিদ আহমেদ এর সুর ও সঙ্গীতপরিচালনায় দেশের অসংখ্য সঙ্গীতশিল্পী গান করেছেন। ফরিদ আহমেদ অনেক সহজেই বোঝেন গানের কথা, গানের গল্পের সাথে মিউজিকটা কেমন হবে। এ বিষয়ে তিনি দক্ষ এবং দায়িত্ববান।
সুরের ভুবনে তিনি শুধু সঙ্গীতই উপহার দেননি, অনেককেই হাত ধরে তার গন্তব্যে পৌঁছাতে সহযোগীতা করেছেন।
তিনি স্মরণীয় থাকবেন সবার হৃদয়ে সবসময়। উনার সুস্বাস্থ্য কামনা করি।
অলংকরন – গোলাম সাকলাইন…

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

%d bloggers like this: