ঈদ আয়োজনে নতুন এ্যালবাম…

একটা সময় ছিলো তখন ঈদ মানেই গান। কোন বিদেশী গান নয়, আমাদের দেশীয় গানের শত শত এ্যালবাম প্রকাশ হত। তরুনেরা ঈদ এবং নতুন গানের উৎসবে মেতে উঠতো। ঈদে চলতো ঢাকা শহরে গান শোনার প্রতিযোগিতা। একজন এক ছাঁদে এল,আর,বি – আইয়ুব বাচ্চু-র গান অন্যজন তার ছাঁদে নগর বাউল – জেমস এর গান। আর গ্রামে যারা থাকতো তাদের জন্যও অনেক প্রিয় শিল্পীদের গান থাকতো। সবাই অপেক্ষায় থাকতো ঈদে প্রিয় শিল্পীর এ্যালবাম কবে বের হবে। তখন ছিলো ফিতা ক্যাসেট এর যুগ। অডিও প্রতিষ্ঠান গুলো বুকভরা সাহস নিয়ে এ্যালবাম প্রকাশ করতো।  তখন ছিল না গান বা এ্যালবাম নকল করার কোন সিস্টেম, ছিলোনা মোবাইলে শেয়ারকৃত
কোন কিছু। গত ৪/৫ বছরে বিভিন্ন পাইরেসি ও নকল সিডি ইত্যাদির মাধ্যমে ক্যাসেট কোম্পানিগুলো হুমকির মুখে পড়ে যায়। প্রতিষ্ঠান গুলো নতুন এ্যালবাম করার কোন ভরসা পায়নি। গত কয়েক বছরে অডিও বাজার মন্দার করণে অনেকেই সঙ্গীত থেকে দূরে সরে গেছেন। এ বছর আবারো যেন সঙ্গীত এর জোয়ার এসেছে। প্রতিটি প্রতিষ্ঠান থেকে অসংখ্য এ্যালবাম বের হয়েছে। অনেক শক্তিশালী প্রতিষ্ঠান বাংলা সঙ্গীতের পাশে এসে দাড়িয়েছেন। আবারো সঙ্গীত প্রতিষ্ঠান, শিল্পী, সুরকার  গীতিকার ও সংগীতায়োজকরা আশার আলো খুঁজে পেলেন। ইউটিউব কিনে নিয়েছেন গোগল। অনলাইনে সঙ্গীতের বাজার অনেক বড়, স্রোতাও বেশি। গত কয়েক মাসে বাংলা গানের সফলতা অনেক ভালো।  তাই এই ঈদে আগের মতই অনেক এ্যালবাম বের হয়েছে। সঙ্গীতে ফিরে এসেছে অনেকেই। বাংলাদেশের অনেক সুনামধন্য প্রতিষ্ঠান- লেজার ভিশন। শুরু থেকেই তারা ভালো এ্যালবাম উপহার দিয়ে আসছেন দেশের মানুষকে। এই ঈদেও তারা এগিয়ে আছেন ভালো কিছু অ্যালবাম নিয়ে।

লেজার ভিশনের ঈদ আয়োজন।
বিনোদন ডেস্ক : পবিত্র ঈদুল ফিতরকে সামনে রেখে বরাবরের মত লেজার ভিশন এবারও প্রকাশ করতে যাচ্ছে নবীন ও জনপ্রিয় শিল্পীদের বেশ কয়েকটি অডিও অ্যালবাম, মিউজিক ভিডিও ও চলচ্চিত্রের ডিভিডি।
১। এ্যালবাম : পদ্ম পুকুর, কণ্ঠ শিল্পী : কনক চাঁপা, কথা : গাজী মাজহারুল আনোয়ার, কবির বকুল, জুলফিকার রাসেল, হুমায়ুন কবির, এস আই সহিদ, এমাদ জুয়েল, সুর ও সঙ্গীত: মইনুল ইসলাম খান।
২। এ্যালবাম : আর একটিবার, কণ্ঠ শিল্পী : বেলাল খান, সহশিল্পী: সাবা ও উপমা, কথা : আব্দুল কাদের মুন্না, জীবন মাহমুদ, সোমেশ্বর অলি, জুলফিকার রাসেল, রবিউল ইসলাম জীবন, জাহিদ আকবর, ইকবাল খন্দকার ও মাহমুদ জুয়েল, সুর : বেলাল খান, সঙ্গীত : মুশফিক লিটু।
৩। এ্যালবাম : একটা বন্ধু চাই, কণ্ঠশিল্পী: সামিনা চৌধুরী ও রাঘব চট্টোপাধ্যায়, কথা: জুলফিকার রাসেল, সুর ও সঙ্গীত: রাঘব চট্টোপাধ্যায়।
৪। এ্যালবাম : অজানা পথে, কণ্ঠশিল্পী : অর্ণব মিত্র ও অনুপমা দেবনাথ, সুর ও সঙ্গীত : অর্নব মিত্র।
৫। এ্যালবাম: সুরমা পাড়ের গান, কণ্ঠশিল্পী: রাশেদুল কয়েছ, কথা ও সুর: শাহ আব্দুল করিম, গিয়াস উদ্দিন, আরকুম শাহ, হাসন রাজা, দুরবীন শাহ, শাহনুর শাহ, কবি দিলওয়ার, এ. কে আনাম।
৬। এ্যালবাম : ফোক ফ্যাক্টরী, কণ্ঠশিল্পী : শিরিন দেওয়ান ও হাবিব সিরাজি বাব্বু, সঙ্গীত : পংকজ।
৭। এ্যালবাম : রবীন্দ্রনাথের বর্ষার গান, কণ্ঠশিল্পী ও সঙ্গীত : অজয় মিত্র।
৮। এ্যালবাম : বলবো তোকে, কণ্ঠশিল্পী : রাকিব মোসাব্বির, সৌরিক ব্যানার্জি, রৌশনি, অর্নব ও সৌরভ, সুর ও সংগীত : রাকিব মোসাব্বির।
৯। এ্যালবাম : আয় ভোর, কণ্ঠশিল্পী : আমিরুল মোমেনীন মানিক, নচিকেতা, আসিফ, আগুন ও লিজা, কথা : আমিরুল মোমেনীন মানিক, নাজমুল আশরাফ, নচিকেতা, সানাউল হক, এম এস রানা, রাকিব হাসান, সোহেল অটল, রেজাউর রহমান রিজভী, এন আই বুলবুল ও মাহবুবুর রহমান সজীব, সুর ও সঙ্গীত: সুর : নচিকেতা, মানিক ও শাশা ।
১০। এ্যালবাম : দখিণা বাতাস, কণ্ঠশিল্পী : সফি মন্ডল, দিলরুবা খান, শিমূল খান, রিংকু, বিউটি ও সালমা, কথা : কাওসার আহমেদ কাজল, সুর : অনুপ ভট্টাচার্য্য ও সফি মন্ডল, সঙ্গীত : সুমন কল্যাণ।
১১। এ্যালবাম : কেনো দুরে থাকো, কণ্ঠ শিল্পী : রাজিব, সজল, লুৎফর হাসান, শাওন, নওরিন, পলক হাসান, রিংকু, লোপা হোসাইন ও অর্ক আখন্দ, কথা : রানা, অনুরুদ্ধ রাসেল, লুৎফর হাসান, অনুজ, পলক হাসান, ওয়ালিদ ও রাকিবুল ইসলাম রাহুল, সুর ও সঙ্গীত: রানা আখান্দ।
১২। এ্যালবাম : নিঠুর বন্ধু, কণ্ঠ শিল্পী: শামীম আহমদ, কথা ও সুর : শাহ আব্দুল করিম, দূর্বীণ শাহ, গিয়াস উদ্দিন আহমদ, ক্বারী আমির উদ্দিন।
১৩। এ্যালবাম : মন একটা চোরাবালি, কণ্ঠ শিল্পী : ওবায়দুর রহমান, কথা: ফখরুল ইসলাম ওমর, সুর ও সঙ্গীত : ওবায়দুর রহমান
এ সকল শিল্পী, সুরকার, গীতিকার ও সঙ্গীতায়োজক এবং লেজার ভিশন এর সফলতা কামনা করি। প্রতাশা করি তারা বাংলা সঙ্গীতকে পৌঁছে দিবে সারা বিশ্বের মানুষের কাছে। আর আমাদের সঙ্গীতাঙ্গন সবসময় আছে আপনাদের
পাশে, বুকভরা ভালবাসা নিয়ে….। – আমিন

অলংকরন – গ্লামার ওয়ার্ল্ড….

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

%d bloggers like this: