কণা এখন রাজকন্যা…

বিশ্বাস, স্বপ্ন, সাধনা,পরিশ্রম, এবং ধৈর্য, এই পাঁচটি জিনিস সফলতার ফাউন্ডেশন।
যার মধ্যে এই গুনগুলো আছে তিনি একদিন সফল হবেন। বাংলাদেশ সঙ্গীতের বর্তমান সময়ের জনপ্রিয় এবং সফল গানের সঙ্গীতশিল্পী দিলশাদ নাহার কণা।
গত দেড়যুগ ধরেই নিজের ক্যারিয়ার প্রতিষ্ঠার জন্য লড়াই করেছেন। অনেক আত্মবিশ্বাসী কণা। তাই ব্যর্থ হননি।
গানের কঠিন সাধনা এবং তার মধুর কণ্ঠ কণাকে তার গন্তব্যে পৌঁছাতে সহযোগীতা করেছেন। বাংলাদেশ এবং ভারতের দুই দেশেরই জনপ্রিয় গীতিকবি এবং সুরকাদের সুরে গান গেয়ে যাচ্ছেন কণা।
এবার গানের পাশাপাশি রাজকন্যা রুপে নিজের গানে অভিনয় করতে দেখা যাবে কণাকে।

যিশুখ্রিস্টের জন্মের ৭৫০ বছর আগের সময়। যখন গহীন জাদুময় জঙ্গলে ভালোবাসার দূত এক রাজকন্যার সঙ্গে মিলিয়ে দেয় তার স্বপ্নের রাজকুমারকে! অবসান হয় রাজকুমারীর প্রতীক্ষার। তৈরি হয় তাদের ভালোবাসার নতুন গল্প।
এই সময়ের অন্যতম জনপ্রিয় কণ্ঠশিল্পী কণার গাওয়া গানের ভিডিওতে দর্শকরা ঠিক এমন কিছুই দেখতে পাবেন। যেখানে রাজকুমারী রূপে পাওয়া যাবে দিলশাদ নাহার কণাকে।
সোমেশ্বর আলির কথায় ‘খামোখাই ভালোবাসি’ শিরোনামের এ গানটির সঙ্গীত পরিচালনা করেছেন সাজিদ সরকার। সিএমভির প্রযোজনা আর মোশনরক এন্টারটেইনমেন্টের কারিগরি সহায়তায় ভিডিওটি নির্মাণ করেছেন পনি আবেদিন।
এবং এটিই হতে যাচ্ছে দেশের অন্যতম ব্যয়বহুল মিউজিক ভিডিও। তেজগাঁওয়ের কোক স্টুডিওতে সম্প্রতি টানা শুটিং হয়েছে এর।
এর আইডিয়া, ক্রিয়েটিভ ডিরেকশন, পোশাক ও কোরিওগ্রাফিতেও ছিলেন পরিচালক পনি নিজেই।
আন্তর্জাতিক ভিএফএক্স স্টুডিওর মতো এখানে নিউক-মায়ার ওয়ার্কফ্লো দিয়ে কাজ হয়েছে, অনেক সুন্দর বিষয় হলো এই গানের ভিডিও নির্মাণে প্রায় ১০০০ গাছ সংগ্রহ করতে হয়েছে, মিউজিক ভিডিওর গল্পের প্রয়োজনে।
৫০ দিনেরও বেশি সময় লেগেছে ভিডিওটি তৈরি করতে। যেখানে সার্বক্ষণিক একসঙ্গে কাজ করেছে থ্রিডি মডেলার, ভিএফএক্স সুপার ভাইজর, ভিএফএক্স আর্টিস্ট ও কালারিস্ট।
‘খামোখাই ভালোবাসি’ গানটির ভিডিও তৈরিতে প্রায় ২০ লাখ টাকা ব্যয় হচ্ছে! যা এ পর্যন্ত অডিও বাজারের সর্বোচ্চ বলেই ধরে নেওয়া হচ্ছে।
দিলশাদ নাহার কণা রাজকন্যা হয়েই গানে গানে ভরে রাখুক সুরের ভুবন। শুভকামনা রইলো কণার জন্য।  – মোঃ মোশারফ হোসেন মুন্না…

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

%d bloggers like this: