সুনামধন্য গীতিকবি প্রিন্স মাহমুদ…

বাংলাদেশের জনপ্রিয় গীতিকবি, সুরকার ও সঙ্গীত শিল্পী পরিচালক প্রিন্স মাহমুদ। গীতিকার হিসেবে ৯০ দশক থেকে বাংলাদেশে ব্যান্ড শিল্পীদের একক এবং যৌথ এ্যালবামের গান লেখা, সুর করা এবং কম্পোজিশনের কাজ করেছেন তিনি। তাঁর লেখা ও সুর করা একাধিক গান ব্যাপক জনপ্রিয়তা পেয়েছে। ১৯৯৫ সালে ‘শক্তি’ এ্যালবামের মধ্য দিয়ে মিশ্র শিল্পীর গানের এ্যালবাম প্রকাশ শুরু করেন তিনি। একক, দ্বৈত ও মিক্সড মিলিয়ে প্রিন্স মাহমুদের ৪০তম এ্যালবাম ‘নিমন্ত্রণ। প্রিন্স মাহমুদ বর্তমানে গীতিকার, সঙ্গীত পরিচালক হিসেবে কাজ করছেন। তাঁর সঙ্গীতের শুরু ছেলেবেলা থেকেই। অনেকটা আড়ালে,অগোচরে পরিবারের ইচ্ছার বাইরে গিয়েই তার গান শেখা এবং গান করা শুরু করেন তিনি।

স্কুলে পড়ার সময় থেকেই ব্যান্ডের সাথে জড়িয়ে পড়েন তিনি। ‘দি ব্লুজ’ নামের একটি ব্যান্ডের ভোকালিস্ট ছিলেন বেশ কিছু দিন। তারপর কলেজের গন্ডি পেরিয়ে শুরু করেন পুরো দমে কম্পোজিশন। গান কম্পোজিশনের পাশাপাশি তিনি গানও লেখা শুরু করেন। সংগীতের ভূবনে প্রিন্সের এর পথ চলা শুরু হয় ৮০র দশকের একেবারে শেষ প্রান্তে এই ‘দ্যা ব্লুজ’ ব্যান্ড এর ভোকাল ও গিটারিস্ট হিসেবে। এরপর ৯০ দশকের শুরুতে প্রিন্স গঠন করেন ‘ফ্রম ওয়েস্ট’ নামক একটি ব্যান্ড যেখানে ব্যান্ড লিডার এবং মূল ভোকাল ছিলেন তিনিই। সেই ব্যান্ড এর আলোচিত একটি গান ছিল রাজাকার আলবদর কিছুই রইবো নারে/উপরে দালাল ভিতরে চোর কিছুই হইবো নারে/সব রাজাকার ভাইসা যাইবো বঙ্গোপসাগরে” গানটি। ফ্রম ওয়েষ্ট এর প্রকাশিত প্রথম এ্যালবাম এর নাম ছিল ‘সে কেমন মেয়ে’। সর্বশেষ এ্যালবাম করেছেন ‘খেয়াল পোকা’ এবং ‘ভূমিপুত্র’। প্রিন্স মাহমুদ এর লেখা এবং চিন্তা ধারা অনেক গীতিকবির চেয়ে আলাদা। তাই তিনি গান পাগল মানুষদের কাছে আলাদা কেউ। প্রিন্স মাহমুদ দেশের মহানায়ক সদ্য প্রয়াত শ্রদ্ধেয় রাজ রাজ্জাককে নিয়ে একটি কবিতা লিখেছেন। যে কবিতায় তিনি মহানায়ক এর ছবি
এবং ব্যক্তিত্বের কথা তুলে ধরেছেন।
‘ হে নায়ক রাজ!
কে তুমি?
প্রজন্ম কি জানে?

তার জনপ্রিয় গানের মধ্যে, বাংলাদেশ আজ জন্মদিন তোমার, মা (দশ মাস দশ দিন), বেলা শেষে ফিরে এসে পাইনি তোমায়, পালাতে চাই, এত কষ্ট কেন ভালোবাসায়, বন্ধু ভেঙ্গে ফেল এই কারাগার, কিছু ভুল ছিল তোমার কিছু আমার ইত্যাদি। তার জনপ্রিয় এ্যালবাম গুলো হলো, শক্তি, ওরা এগার জন, ক্ষমা,ঘৃণা, ব্যবধান, দূর থেকে ভালবেসে যাব, শেষ দেখা, এখনও দু’চোখে বন্যা, দাগ থেকে যায়, স্রোত, দেয়াল দুই হৃদয়ের মাঝে, প্রিয় বন্ধুকে – ভেলেন্টাইন স্পেশাল হারজিৎ, পিয়ানো, চিঠির উত্তর দিও, মেহেদী রাঙ্গা হাত, ইত্যাদি ছাড়াও আছে –
১। ছুটি – এবি, হাসান, জেমস (গায়ক)
২। হীরা চুনি পান্না – আসিফ আকবর, সুমন, আতাহার টিটু
৩। এক মুঠো জোছনা – কুমার বিশ্বজিৎ
৪। কিশোর কিশোরী – বাপ্পা মজুমদার, কানিজ সুবর্না, দুই দিনের মেলা – অ্যান্ড্রু কিশোর
৫। ১২ মাস – এবি, হাসান, জেমস, মাকসুদ
৬। এক টুকরো চাঁদ – খালিদ, গায়েঁন – অ্যান্ড্রু কিশোর, ও পুতুল আমার পুতুল – আরিফ
৭। দহন শুধু তোমার জন্য – এবি, হাসান, জেমস, বিল্পব
৮। সারেগামা – হাসান, জেমস
৯। পদ্ম পাতার জল – অ্যান্ড্রু কিশোর, আতিক হাসান
১০। দেশে ভালবাসা নাই – এবি, জেমস। ১১। যন্ত্রনা – এবি, জেমস
১২। হ্যালো কষ্ট – হাসান
১৩। প্রতারণা – এবি, জেমস
১৪। মাটি – এবি, জেমস
১৫। দেনা পাওনা – এবি, জেমস, হাসান
১৬। বাজনা – এবি, জেমস, বিল্পব
১৭। ভালবাসা মানে দুঃখ – হাসান
১৮। আড্ডা – মেহরাব, রুমী দেবী
১৯। বন্দনা – মাহাদী
২০। হাটি – কুমার বিশ্বজিৎ, ফাহমিদা নবী
২১। ঘুমাও – খালিদ
২২। বোকা – ক্লোজাআপ ওয়ান তারাকাদের নিয়ে
২৩। প্রিন্স মাহমুদের গান – প্রিন্স মাহমুদ, পলাশ, মেহরাব, ফাহমিদা নবী
‘খেয়াল পোকা’, ‘ভূমিপুত্র’ এবং নির্বাচিতা (প্রিন্স মাহমুদের সর্বশেষ প্রকাশিত এ্যালবাম)
জয় পরাজয় – তপন চৌধুরী, কুমার বিশ্বজিৎ, খালিদ হাসান মিলু, আগুন। – মোঃ মোশারফ হোসেন মুন্না

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

%d bloggers like this: