বিটিভির মহা আয়োজনে থাকছে আনন্দমেলা…

গত ঈদের মত এবারও মহা আনন্দে ঈদ আয়োজন সাজানো হয়েছে বিটিভি অনুষ্ঠান মালা দিয়ে। প্রতি বারের মত এবারও বিশেষ আর্কষণ হিসেবে থাকছে ঈদের বিশেষ ম্যাগাজিন অনুষ্ঠান আনন্দমেলা। এবারের আয়োজন গত বারের চাইতে আরো ভিন্ন। বেশ ভালো লাগা গানের, তারকাদের নৃত্য পরিবেশন এবং সমসাময়িক বিষয় নিয়ে মজার কিছু পরিবেশনা। এজন্য গত ২২-২৪শে আগস্ট ঢাকার কয়েকটি লোকেশনে এবং বিটিভির নিজম্ব স্টুডিওতে সেট তৈরি করে আনন্দমেলার শুটিং করা হয়েছে। এবারের আনন্দমেলা উপস্থাপনা করছেন জনপ্রিয় চিত্রনায়ক রিয়াজ এবং অভিনেত্রী-কণ্ঠশিল্পী শাওন। সবচেয়ে মজার বিষয় হলো এবারের অনুষ্ঠানে থাকছে কৌশিক হোসেন তাপসের সংগীত তত্ত্ববাধানে বিশ্বের বেশ কয়েকটি দেশের খ্যাতিমান যন্ত্রশিল্পীদের অংশগ্রহণে তৈরি দুটি গান। যা আনন্দমেলার আরেকটি আকর্ষণ। তার মধ্যে একটি গেয়েছেন রবীন্দ্রসঙ্গীত শিল্পী রেজওয়ানা চৌধুরী বন্যা। রবীন্দ্রসঙ্গীতের শিল্পী হিসেবে তিনি গাইবেন আঞ্জুমান আরা বেগমের গাওয়া ‘আকাশের হাতে আছে একরাশ নীল’ জনপ্রিয় এ গানটি। অন্য গানটি গাইবেন আরেক জনপ্রিয় শিল্পী সামিনা চৌধুরী। মাহমুদউন নবীর ‘তুমি যে আমার কবিতা’ এই শিরোনামের জনপ্রিয় গানটি শুনা যাবে সামিনার কন্ঠে। তার চাইতে বড় মজার ব্যাপার হলো এই গানটির সঙ্গে চমৎকার একটি পারফর্মেন্সে অংশ নিয়েছেন এ সময়ের সফল চলচ্চিত্রের জনপ্রিয় অভিনেত্রী জয়া আহসান। শিল্পী কৌশিক হোসেন তাপস এর নিজের লেখা ও সুরে, ফুয়াদের সঙ্গীতায়োজনে গেয়েছেন ‘কত ভালোবাসি তোমাকে’ গানটি। উপস্থাপনার পাশাপাশি শাওন নিজে গেয়েছেন চলচ্চিত্রের ‘আমার আছে জল’ গানটি। সদ্য প্রয়াত সংগীত ব্যক্তিত্ব লাকি আখান্দের স্মৃতির প্রতি শ্রদ্ধা জানিয়ে তার সুর করা ও হ্যাপি আখান্দের গাওয়া ‘কে বাঁশি বাজায়রে’ গানটি গেয়েছেন ফাহমিদা নবী। গানটি নতুন করে সংগীতায়োজন করেছেন বাপ্পা মজুমদার। এছাড়া এম এস রানার লেখা ও আইয়ুব বাচ্চুর সুরে আইয়ুব বাচ্চু, বালাম, কনা ও কোনালের গাওয়া ‘আনন্দমেলা’ টাইটেল গানটি নতুন করে উপস্থাপন করা হচ্ছে এবারের অনুষ্ঠানে।

এত চমকের মধ্যে আরেকটি চমক হলো এবার প্রথম বারের মতো আনন্দমেলার জন্য একটি চমৎকার নাচ পরিবেশন করেছেন চিত্রনায়িকা অপু বিশ্বাস। এছাড়া বিশেষ নৃত্য পরিবেশনায় অংশ নিয়েছেন কয়েক প্রজন্মের শিল্পীরা। তারা হলেন লায়লা হাসান, মুনমুন আহমেদ, নাদিয়া ও লিখন। সমসাময়িক বিভিন্ন বিষয় নিয়ে তৈরি মজার মজার সব পরিবেশনায় অংশ নিয়েছেন অনন্ত হিরা, নূনা আফরোজ, মোঃ বারীসহ আরো অনেক তারকা শিল্পী। থাকছে চতুর্থ শ্রেণিতে পড়া শীর্ষেন্দুকে নিয়ে একটি বিশেষ প্রতিবেদন, যার চিঠি পড়ে প্রধানমন্ত্রী পায়রা নদীতে একটি ব্রিজ নির্মাণের প্রতিশ্রুতি দিয়েছেন। আরো থাকছে অন্ধ দুই সংগীত শিল্পী বোন রুবা ও টুংটাংকে নিয়ে প্রতিবেদন, যারা অন্ধ ছেলেমেয়েদের গান শিখিয়ে জীবন বদলে দিতে শুরু করেছে। বিটিভির মহাপরিচালক এস এম হারুন-অর-রশীদের পরিকল্পনা ও গ্রন্থনায় এবারের ঈদ আনন্দমেলা পরিচালনা করবেন মাহফুজা আক্তার। আর প্রচার হবে ঈদের দিন রাত ১০টার ইংরেজি সংবাদের পর। আনন্দমেলার এই জমকালো আয়োজনে বিটিভির পাশে থাকুন। সঙ্গীতাঙ্গন এর পক্ষ থেকে সবার জন্য রইলো ঈদের শুভেচ্ছা ও শুভকামনা। ঈদ হোক সবার জীবনে আনন্দের আর সুখের এই কামনায়। – মোঃ মোশারফ হোসেন মুন্না

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *