চলচ্চিত্রে টপ ২০ গান কোনগুলো ?…

সঙ্গীতের বিশাল ভুবনে আজ পর্যন্ত কত গানের জন্ম হয়েছে তা কি কেউ জানে? এমন কি সুনামধন্য একজন প্রতিষ্ঠিত শিল্পী তার নিজের গাওয়া গান কতগুলো হবে তার হিসেব ও অজানা। আনুমানিক একটা ধারণা পাওয়া যায় শুধু। কিন্তু বাংলাদেশের যত বিখ্যাত কালজয়ী গান রয়েছে সব গানের জরিপ চালিয়ে সূদুর জাপানের এক জনপ্রিয় পত্রিকা “জাপান বাংলাদেশ ডট কম”। যে পত্রিকার পরিচালনায় আছেন জাপান সরকার। তারা তাদের পত্রিকাতে বাংলাদেশের জনপ্রিয় চলচ্চিত্র গানের ১ থেকে ২০ পর্যন্ত টপ ২০ লিস্টে তৈরি করেছেন। যে সব গান সেই তালিকাতে উঠে এসেছে আসুন জেনে নেই সেই সব বিখ্যাত গানের সংক্ষিপ্ত পরিচয়।

০১ : গান – পিচঢালা এ পথটারে ভালোবেসেছি
শিল্পী : আব্দুল জব্বার।
ছবি : পিচঢালা পথ,
গীতিকার : গাজী মাজহারুল আনোয়ার। সুরকারঃ রবীন ঘোষ।

০২ : আকাশের হাতে আছে একরাশ নীল
শিল্পী : আঞ্জুমান আরা বেগম,
ছবি : আয়না ও অবশিষ্ট।
গীতিকার : গাজী মাজহারুল আনোয়ার।
সুরকার : সত্য সাহা।
জানা যায় এই গানটি গাজী মাজহারুল আনোয়ারের প্রথম লেখা গান।

০৩ : আমি সাত সাগর পাড়ি দিয়ে
শিল্পী : মাহমুদুন্নবী ও আবিদা সুলতানা।
ছবি : আলো তুমি আলেয়া।
গীতিকার : গাজী মাজহারুল আনোয়ার।
সুরকার : সুবল দাস।

০৪ : চোখ যে মনের কথা বলে
শিল্পী : খন্দকার নূরুল আলম।
ছবি : যে আগুনে পুড়ি।
গীতিকার : গাজী মাজহারুল আনোয়ার।

০৫ : গানেরই খাতায় স্বরলিপি লিখে
শিল্পী : মাহমুদুন্নবী ও রুনা লায়লা।
ছবি : স্বরলিপি।
গীতিকার : গাজী মাজহারুল আনোয়ার, সুরকারঃ সুবল দাস।
এই গানটি বাংলা চলচ্চিত্রে রুনা লায়লার গাওয়া প্রথম গান।

০৬ : নীল আকাশের নীচে আমি
শিল্পী : খন্দকার ফারুক আহমেদ।
ছবি : নীল আকাশের নীচে।
গীতিকার : গাজী মাজহারুল আনোয়ার।
সুরকার : সত্য সাহা।

০৭ : চোখের নজর এমনি কইরা
শিল্পী : সৈয়দ আব্দুল হাদী।
ছবি : ফকির মজনু শাহ।
গীতিকার : গাজী মাজহারুল আনোয়ার।
সুরকার : আলাউদ্দিন আলী।

০৮ : আছেন আমার মোক্তার
শিল্পী : সৈয়দ আব্দুল হাদী।
ছবি : গোলাপী এখন ট্রেনে।
গীতিকার : গাজী মাজহারুল আনোয়ার।
সুরকার : আলাউদ্দিন আলী।

০৯ : কথা বলো না বলো ওগো বন্ধু
শিল্পী : ফেরদৌসী রহমান।
ছবি : মধুমিলন।
গীতিকার : শহীদুল ইসলাম।
সুরকার : বশীর আহমেদ।

১০ : অশ্রু দিয়ে লেখা এ গান
শিল্পী : সাবিনা ইয়াসমীন।
ছবি : অশ্রু দিয়ে লেখা।
গীতিকার : ড. মোহাম্মদ মনিরুজ্জামান।
সুরকার : আলী হোসেন।

১১ : তুমি কি দেখেছ কভু
শিল্পী : আব্দুল জব্বার।
ছবি : এতটুকু আশা।
গীতিকার : ড. মোহাম্মদ মনিরুজ্জামান।
সুরকারঃ সত্য সাহা।

১২ : এই পৃথিবীর পান্থশালায়
শিল্পী : সৈয়দ আব্দুল হাদী।
ছবি : যোগবিয়োগ।
গীতিকার : ড. আবু হেনা মোস্তফা কামাল।
সুরকার : সুবল দাস।

১৩ : একবার যদি কেউ ভালোবাসত
শিল্পী : সৈয়দ আব্দুল হাদী ও সামিনা চৌধুরী।
ছবি : জন্ম থেকে জ্বলছি।
গীতিকার : আমজাদ হোসেন।
সুরকার : আলাউদ্দিন আলী।
সামিনা চৌধুরীর অষ্টম শ্রেণীতে পড়া কালীন সময়ের প্রথম বাচ্চাকণ্ঠে ‘জন্ম থেকে জ্বলছি’ গানটি গাওয়া।

১৪ : কেউ কোনো দিন আমারে তো কথা দিল না
শিল্পী : সৈয়দ আব্দুল হাদী ও সাবিনা ইয়াসমীন।
ছবি : সুন্দরী।
গীতিকার : আমজাদ হোসেন।
সুরকার : আলাউদ্দিন আলী।

১৫ : হায়রে মানুষ রঙিন ফানুস
শিল্পী : এন্ড্রু কিশোর।
ছবি : বড় ভালো লোক ছিল।
গীতিকার : সৈয়দ শামসুল হক।
সুরকার : আলম খান।

১৬ : চাঁদের সাথে আমি দেব না তোমার তুলনা
শিল্পী : রুনা লায়লা ও এন্ড্রু কিশোর।
ছবি : আশীর্বাদ।
গীতিকার : সৈয়দ শামসুল হক।
সুরকার : আলম খান।
গানটি সৈয়দ শামসুল হক তাঁর পুত্রের অনুরোধে লিখেছিলেন।

১৭ : ওরে নীল দরিয়া
শিল্পী : আব্দুল জব্বার।
ছবি : সারেং বউ।
গীতিকার : মুকুল চৌধুরী।
সুরকার : আলম খান।

১৮ : কী যাদু করিলা
শিল্পী : সাবিনা ইয়াসমীন ও এন্ড্রু কিশোর।
ছবি : প্রাণ সজনী।
গীতিকার : মনিরুজ্জামান মনির।
সুরকার : আলম খান।

১৯ : তুমি যেখানে আমি সেখানে
শিল্পী : এন্ড্রু কিশোর।
ছবি : নাগ পূর্ণিমা।
গীতিকার : মনিরুজ্জামান মনির।
সুরকার : আলম খান।

২০. চুমকি চলেছে একা পথে
শিল্পী : মোহাম্মদ খুরশীদ আলম।
ছবি : দোস্ত দুশমন।
গীতিকার : দেওয়ান নজরুল।
সুরকার : আলম খান।

– মোঃ মোশারফ হোসেন মুন্না

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *