Press "Enter" to skip to content

ব্যান্ড তারকা মাকসুদুল হক এর ৬০তম জন্মবার্ষিকী আজ…

ব্যান্ড জগতে এক অবিনাশী নাম ফিডব্যাক। ফিডব্যাক এর দিয়েই পথচলা শুরু শ্রোতানন্দিত ব্যান্ড তারকা মাকসুদুল হক এর। ১৯৫৭ সালের ১৬ই সেপ্টেম্বর নারায়ণগঞ্জ জেলায় তার জন্ম। তার পৈতৃক ভিটা ভারতের আসামে। মাকসুদুল হকের সঙ্গীতজীবনের শুরু ফিডব্যাক ব্যান্ডের হাত ধরে ১৯৭৬ সালে। সেই যে পথচলা শুরু। আর পিছন ফিরে তাকাতে হয়নি তাকে। দীর্ঘ ২০ বছর ফিডব্যাক ব্যান্ডের হয়ে মাতিয়েছেন বাংলার তরুণ হৃদয়। হয়ে উঠেছেন কিংবদন্তি। কিন্তু ১৯৯৬ সালে তিনি ফিডব্যাক ছেড়ে গড়ে তোলেন জাজা-রক ফিউশন ব্যান্ড ‘মাকসুদ ও ঢাকা’। এটিই ছিল বাংলাদেশে এ ধরনের প্রথম ব্যান্ড। নিজের গড়ে তোলা ব্যান্ড নিয়ে তিনি শুরু করে বাউলিয়ানার চর্চা। লোক ও বাউল গানকে তিনি আলাদা মাত্রায় তরুণ প্রজন্মের কাছে উপস্থাপনের চেষ্টা করেন। এবং এই চেষ্টায় তিনি সফলও হন প্রতিবাদী গান লিখে গেয়ে দেশের রাজনীতিকদের বিরাগভাজন হয়েছেন, নিষিদ্ধ করা হয়েছে তার গান। মাকসুদ এর গানে প্রকাশ পায় বাংলাদেশের রাজনৈতিক প্রক্ষাপট। তাই নিজ দেশের বিরুধ ধর্মীয় গানের জন্য নিষেধ করা হয় তার গান গাওয়া। তিনি বাংলাদেশ মিউজিক্যাল ব্যান্ডস অ্যাসোসিয়েশন – বামবার প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি। এর আগে তিনি একটি বেসরকারি প্রতিষ্ঠানে গুরুত্বপূর্ণ পদে দায়িত্ব পালন করেন। এছাড়া তিনি টিভি অনুষ্ঠান উপস্থাপনার পাশাপাশি পত্রিকায় কলাম লিখে থাকেন।
তার জনপ্রিয় গানের মধ্যে কিছু গানঃ

১। সামাজিক কুষ্ঠ কাঠিন্ন্য।
২। মনে পরে তোমায়।
৩। ধন্যবাদ ভালোবাসা।
৪। মেলায় যাইরে।
৫। মৌসুমি।
৬। তোমারে এতো ভালোবাসি।
৭। উল্লাস এই মনে।
৮। চিঠি।
৯। ওগো ভালোবাসা।
১০। লালন বলে ভোলা মন।
১১। গণতন্ত্র মানে।
১২। আবার যুদ্ধে যেতে হবে।
১৩। চলে গেলে।
১৪। পরওয়ারদেগার।
১৫। তোমাকে দেখলে।
১৬। তুমি যে আমার বাংলাদেশ।
১৭। গীতিমিছিল।
১৮। জেগে থেকো সারা রাত।
১৯। রাই জাগো।
২০। হৃদয়ে গেঁথে রেখেছি।
২১। উন্মাদনায় কাটে প্রেম, ইত্যাদি।

আজ এই শুভ দিনে সঙ্গীতাঙ্গন এর পক্ষ থেকে জানাই জন্মদিনের শুভেচ্ছা শুভজন্মদিন। সুস্থ্য সুন্দর হক আগামীর পথ চলা। জীবনে আসুক অনাবিল আনন্দ সেই কামনায়। – মোঃ মোশারফ হোসেন মুন্না

Be First to Comment

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

%d bloggers like this: