বংশীবাদক ধীর আলী মিয়া…

যন্ত্রসঙ্গীত শিল্পী হলেও সঙ্গীতশিল্পী, সঙ্গীত পরিচালক, ও সুরকার হিসেবে যার পরিচয় আমাদের কাছে খ্যাত তিনি হলেন বিশিষ্ঠ সঙ্গীতজ্ঞ ধীর আলী মিয়া। সঙ্গীত পরিচালনার জন্য তিনি ১৯৬৫ সালে পাকিস্তান সরকার কর্তৃক প্রদত্ত তমঘায়ে ইমতিয়াজ এবং যন্ত্র ও লোকসঙ্গীতে অবদানের জন্য ১৯৮৬ সালে মরণোত্তর বাংলাদেশ সরকার কর্তৃক প্রদত্ত একুশে পদকে ভূষিত হন। তার জীবনী পর্যালোচনা করলে জানা যায় যে ধীর আলী ১৯২০ সালের ১লা জানুয়ারি তৎকালীন ব্রিটিশ ভারতের বেঙ্গল প্রেসিডেন্সির বর্তমান বাংলাদেশের মুন্সিগঞ্জ জেলার টঙ্গীবাড়ী উপজেলার বাঁশবাড়ি গ্রামে জন্মগ্রহণ করেন। হয়তো বা গ্রামের নামের সাথে তার কর্ম জীবনের কিছুটা মিল পরিলক্ষিত হয়। প্রাথমিক শিক্ষা গ্রহণ করেন স্থানীয় প্রাথমিক বিদ্যালয়ে। পরে সোনারং উচ্চ বিদ্যালয়ে পড়াশুনা করেন। শৈশব থেকেই তাঁর পিতামহ সঙ্গীতজ্ঞ সাদেক আলীর নিকট বংশী বাদনে তালিম গ্রহণ করেন। তিনি বাঁশি ছাড়াও বেহালা, গিটার, ও ক্লারিওনেট বাজানো শিখেন। তবে তাঁর খ্যাতি বংশী বাদনেই।

ধীর আলীর কর্মজীবন শুরু হয় ১৯৪৫ সালে অল ইন্ডিয়া রেডিওর ঢাকা কেন্দ্রে অনিয়মিত বংশীবাদক হিসেবে। ভারত বিভাগের পর ১৯৪৮ সালে ঢাকা কেন্দ্রে তিনি নিজস্ব শিল্পী হিসেবে যোগ দেন। ১৯৮৩ সালে উপপ্রধান সঙ্গীত প্রযোজক পদে থাকাকালীন চাকরি থেকে অবসর নেন। তিনি বুলবুল ললিতকলা একাডেমি ও আর্টস কাউন্সিলের প্রশিক্ষণ কোর্সের শিক্ষকতা করেন। তিনি ‘ঢাকা অর্কেস্ট্রা’ নামক একটি ঐকতান-বাদকদল গঠন করেন, যা বাংলাদেশের সঙ্গীতের উন্নয়নে বিশেষ ভূমিকা পালন করে। ধীর আলী চলচ্চিত্রের গানের সুরকার ও সঙ্গীত পরিচালক হিসেবেও কাজ করেন। তিনিই বাংলার লোকসঙ্গীতে আধুনিক ধারার প্রবর্তক। পূর্ব পাকিস্তান তথা বাংলাদেশে নির্মিত প্রথম পূর্ণদৈর্ঘ্য চলচ্চিত্র মুখ ও মুখোশ-এ তিনি সমর দাসের সহকারী সঙ্গীত পরিচালক হিসেবে কাজ করেন বলে জানা যায়। পরবর্তীতে তিনি নাচঘর, উজালা, জোয়ার এলো, কাঞ্চনমালা, আবার বনবাসে রূপবান, দস্যুরানী, কাজলরেখা চলচ্চিত্রের সঙ্গীত পরিচালনা করেন। কিন্তু ভাগ্য দুষে তিনি থাকতে পারেননি আমাদের কাছে চলে যেতে হয়েছে মৃত্যুর ডাকে সাড়া দিয়ে পর পাড়ে।

১৯৮৪ সালের ১৪ ডিসেম্বর ঢাকায় তিনি জীবনের শেষ নিঃশ্বাষ ত্যাগ করেন। ইতিহাস হয়ে আছেন আমাদের মাঝে। এখনো মনে করি তার রেখে যাওয়া কাজ দেখে। সঙ্গীতের এই গুণী মানুষটি স্মরণে গভীর শ্রদ্ধা জ্ঞ্যাপন করছি। – মোঃ মোশারফ হোসেন মুন্না

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

%d bloggers like this: