করপ্রদানে দেশের তিন স্বনামধন্য সঙ্গীতশিল্পী…

সরকারি নীতিমালা অনুযায়ী একটি নিদিষ্ট আয়ের অধিক হলে সরকারকে করপ্রদান করা নৈতিক দায়িত্ব এবং কর্তব্য। এই নীতিমালায় পিছিয়ে নেই দেশের শিল্পীরা। যেখানে দেশের কোটি কোটি টাকার শিল্পী কারখানার মালিকগণ কর ফাকি দিয়ে সরকারি নিয়ম ভেঙ্গে সরকারকে অবহেলা করছে, সেখানে সহৃদয়ে এ নিয়ম গ্রহণ করে দেশকে এগিয়ে নেওয়ার কাজ করে যাচ্ছেন সঙ্গীতশিল্পী এবং সংস্কৃতি কর্মীরা।

কর প্রদানের সেরার তালিকায় এগিয়ে রয়েছেন কয়েকজন স্ববনামধন্য তারকা। এদের মধ্যে ২০১৬-১৭ অর্থবছরে দেশের সঙ্গীতাঙ্গনের রয়েছেন জনপ্রিয় শিল্পীরা। তিন করদাতার মধ্যে প্রথমে রয়েছেন হয়েছেন রুনা লায়লা। এরপরই রয়েছেন এসডি রুবেল ও রেজওয়ানা চৌধুরী বন্যা। আর অভিনেতা-অভিনেত্রী বিভাগে প্রথমেই রয়েছেন মেহের আফরোজ শাওন। এরপর রয়েছেন যথাক্রমে ঢালিউড সুপারস্টার শাকিব খান ও ছোট পর্দার জনপ্রিয় অভিনেতা জাহিদ হাসান। সেরা করদাতা হিসেবে বিভিন্ন ব্যক্তি ও প্রতিষ্ঠানকে ১৪১টি ট্যাক্স কার্ড দিচ্ছে জাতীয় রাজস্ব বোর্ড (এনবিআর)। এর মধ্যে ব্যক্তি ৭৬ জন। বাকিগুলো প্রতিষ্ঠান। নীতিমালা অনুযায়ী ট্যাক্স কার্ডধারীদের সরকার বিভিন্ন জাতীয় অনুষ্ঠান এবং সিটি কর্পোরেশন ও পৌরসভাসহ স্থানীয় সরকার আয়োজিত নাগরিক সংবর্ধনায় আমন্ত্রণ জানাবে। যেকোনো ভ্রমণে টিকিট পাওয়ার ক্ষেত্রে তারা অগ্রাধিকার পাবেন। চিকিৎসার জন্য সরকারি হাসপাতালে অগ্রাধিকার ভিত্তিতে পাবেন কেবিন সুবিধা। এছাড়া বিমানবন্দরে সিআইপি লাউঞ্জ ব্যবহার এবং তারকা হোটেলসহ সব আবাসিক হোটেলে বুকিং পাওয়ার ক্ষেত্রে অগ্রাধিকার পাবেন তারা। ট্যাক্স কার্ড দেয়ার পর এর মেয়াদ থাকে এক বছর। সত্যিকার অর্থেই এই প্রিয় শিল্পীরা সবসময় আমাদের দেশের গর্ব। তাদের ছোঁয়ায় শুধু সঙ্গীতাঙ্গন নয় সারাদেশ আলোকিত। তাদের জন্য ভালোবাসা অবিরাম।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

%d bloggers like this: