বন্ধ হলো আজম খান ফাউন্ডেশন…

বাংলাদেশের পপ ও ব্যান্ড সঙ্গীত এর মহানায়ক আজম খান। যার পদচারনায় ব্যান্ড সঙ্গীত এর সফলতা পেয়েছে। তাকে আমরা ২০১১ সালের জুন মাসে হারিয়েছি। দূরারোগ্য ক্যান্সারজনিত রোগে তার মৃত্যু হয়। মুক্তি যুদ্ধে ও ছিল তার বিরাট অবদান। তিনি সরাসরি গেরীলা যুদ্ধে অংশগ্রহন করেন। মৃত্যুর পর তার গানের প্রসার ও স্মৃতি রক্ষায় ২০১৩ সালের ২ মার্চ আজম খানের কন্যা ইমা খানের উদ্যোগে প্রতিষ্ঠিত হয় শিল্পী আজম খান ফাউন্ডেশন। এরপর বেশ ভাল ভাবেই এগিয়ে চলছিল এর কার্যক্রম।

কিন্তু বেশকিছু দিন ধরে ফাউন্ডেশনের চেয়ারম্যান ও সদস্যপদ নিয়ে সৃষ্টি হয় জটিলতা। এরপর সদস্যদের উদাসীনতা ও আর্থিক সংকটের কারণে সংগঠনটির সব ধরনের কার্যক্রম মুলতবি করে তা বন্ধ করার ঘোষণা দিয়েছেন আজম খানের মেয়ে ও শিল্পী আজম খান ফাউন্ডেশনের চেয়ারম্যান ইমা খান। জানা যায় এর বন্ধের প্রধান কারণ হচ্ছে, সদস্য পদ নেয়া এবং সদস্যদের তৈরি করার ঝামেলা। ফাউন্ডেশনের চেয়ারম্যানের পদে ইমা খানকে অনেকেরই পছন্দ হচ্ছে না বলে দাবি ইমা খানের। তিনি জানান আমার কথা মতো মিটিংয়ে কেউ আসেন না। আর অর্থনৈতিক ভাবেও কেউ সাহায্য করেনা। আমার অ্যাকাউন্টে যে টাকা ছিল তা শেষ। তাই ফাউন্ডেশনটি আর চালানো যাচ্ছে না। তিনি জানান, পাঁচটি বিভাগে পাঁচ ধরনের সদস্য নিয়ে যাত্রা শুরু করে আজম খান ফাউন্ডেশন। এর মধ্যে বোর্ড মেম্বার ছিল সাতজন। অন্যান্য পদ মিলিয়ে সদস্য ছিল ১৫০ জন। উপদেষ্টাদের মধ্যে ছিলেন সঙ্গীতশিল্পী সৈয়দ আবদুল হাদী, ব্যান্ড দল ফিডব্যাকের ফুয়াদ নাসের বাবু, প্রমিথিউসের বিপ্লব, ডিফারেন্ট টাচের পিয়াল ও মেজবাহ এবং অভিনেত্রী ও নির্মাতা মেহের আফরোজ শাওনসহ আরও অনেকেই। গুরুর প্রতি শ্রদ্ধা নিবেদনে সঙ্গীতাঙ্গন।
– মোঃ মোশারফ হোসেন মুন্না

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

%d bloggers like this: