আন্ডারগ্রাউন্ড পিস লাভারস, দেশের প্রথম ব্যান্ড…

বাংলাদেশের প্রথম ব্যান্ড কোনটি? কে কে ছিলেন এই ব্যান্ডে? জানা গেছে, ১৯৭২ সালের জানুয়ারি মাসে কয়েকজন তরুণ মিলে গড়ে তোলেন একটি ব্যান্ড। রক ধাঁচের এই ব্যান্ডের নাম ‘আন্ডারগ্রাউন্ড পিস লাভারস’। এরপর হোটেল পূর্বাণীতে মার্চ মাসে স্বাধীন বাংলাদেশের প্রথম কনসার্টে গান করে ব্যান্ডটি। সত্তর দশকে তরুণদের মাঝে তুমুল জনপ্রিয় ছিল এই ব্যান্ড। ১৯৭৪ সালের দুর্ভিক্ষের সময় এই ব্যান্ড চ্যারিটি শো করে অর্থ সংগ্রহ করে। এ ছাড়া ‘ধীরে বহে মেঘনা’সহ বেশ কয়েকটি চলচ্চিত্রের আবহসঙ্গীতের কাজও করেছেন এই ব্যান্ডের সদস্যরা।

ওমর খালেদ রুমি ছাড়া আন্ডারগ্রাউন্ড পিস লাভারসের সব সদস্য বিভিন্ন দেশে চলে যান। ফলে এই ব্যান্ডের কার্যক্রম থেমে যায়। অনেক বছর পর ২০১১ সালে আন্ডারগ্রাউন্ড পিস লাভারসের সদস্যদের একসঙ্গে পাওয়া গেল রাজধানীর গুলশান ক্লাবের একটি অনুষ্ঠানে। এরপর এসেছে এই ব্যান্ডের প্রথম এ্যালবাম। জানা গেছে, প্রতিষ্ঠার ৪৫ বছর পর ২০১৭ সালের জানুয়ারি মাসে এসেছে আন্ডারগ্রাউন্ড পিস লাভারসের প্রথম এ্যালবাম।

এবার বাংলাদেশের প্রথম ব্যান্ড আন্ডারগ্রাউন্ড পিস লাভারসের ওপর তৈরি হলো তথ্যচিত্র। ১৯ মিনিটের এই তথ্যচিত্রের নাম ‘মেন ফ্রম সেভেন্টি টু’। নির্মাণ করেছেন ইমতিয়াজ আলম বেগ। এই ব্যান্ডের কথা বর্তমান প্রজন্মের কাছে একেবারেই অজানা। আন্ডারগ্রাউন্ড পিছ লাভারসের নানা গল্প রয়েছে এখানে। নির্মাতার মতে, ‘মেন ফ্রম সেভেন্টি টু’ একটি দলিলচিত্র। এর রয়েছে ঐতিহাসিক গুরুত্ব। এতে আরও আছে আন্ডারগ্রাউন্ড পিছ লাভারসের কয়েকটি গানের অংশ। এরই মধ্যে তথ্যচিত্রটি প্রকাশিত হয়েছে জি-সিরিজের ইউটিউব চ্যানেলে।

বাংলাদেশের ব্যান্ডসঙ্গীতের ফটোগ্রাফির সঙ্গে জড়িত আছে ইমতিয়াজ আলম বেগের নামটি। ‘মেন ফ্রম সেভেন্টি টু’ তথ্যচিত্রের নির্মাতা ইমতিয়াজ আলম বেগ বলেন, আমি চেষ্টা করেছি, টুকরো টুকরো ছবি দিয়ে বাংলাদেশের রক মিউজিককে সংরক্ষণ করতে। যা ইতিহাস তাই ঐতিহ্য সুতরাং এদেরকে আমাদের সংরক্ষণ করা। জরুরী। সঙ্গীতাঙ্গন এর পক্ষ থেকে সবার জন্য শুভেচ্ছা ও অভিনন্দন। – মোঃ মোশারফ হোসেন মুন্না

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

%d bloggers like this: