বই মেলায় কনকচাপাঁ…

শুরু হলো বাঙ্গালীর প্রাণের মেলা একুশে বই মেলা। আর একে ঘিরে থাকছে নতুন নতুন অনুষ্ঠান সহ অনেক কিছু।
এ থেকে পিছিয়ে নেই কোন পেশার মানুষ। এমন কি শিল্পীদের মনেও বাজে বই মেলার আনন্দের সুর। আর বইমেলার জন্যই একটি শীর্ষ সঙ্গীতে কন্ঠ দিয়েছেন বহুবার জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কারপ্রাপ্ত কন্ঠশিল্পী কনকচাঁপা। জামাল রেজার লেখা এবং ফরিদ আহমেদ’র সুর সঙ্গীতে –
‘বই আমার প্রিয় বন্ধু ,
ভালো বন্ধু বই,
সুরে সুরে বলি তাই,
বই এবং বই’
এমন কথার গানে কন্ঠ দিয়েছেন কনকচাঁপা। এরইমধ্যে ফরিদ আহমেদ’র রেশ স্টুডিওতে গানটির রেকর্ডিং-এর কাজ সম্পন্ন হয়েছে।

বইমেলা নিয়ে গান গাওয়া প্রসঙ্গে কনকচাঁপা বলেন, গানের কথা অতি সাধারণ। যেন সাধারণ পাঠকও যেন গানটিকে আপন করে নিতে পারেন। সাবলীল কথায় বইমেলা নিয়ে এমন একটি গানে কন্ঠ দিতে পেরে সত্যিই ভীষণ ভালো লাগছে। ফরিদ ভাই খুব চমৎকার সুর সঙ্গীত করেছেন। যে উদ্দেশ্য নিয়ে গানটি করা হয়েছে, আমার মনে হয় সেই উদ্দেশ্য সফল হবে। সবাই দলে দলে বই কিনতে যাওয়ার মধ্যে এক ধরনের আনন্দ আছে। সেই আনন্দও গানের মধ্যে প্রকাশ হয়েছে। সবচেয়ে বড় কথা বই আমাদের প্রকৃত বন্ধু। আশাকরি বই মেলা এবং বইকে নিয়ে গানটি সবার ভালোলাগবে।
পুরো বইমেলা জুড়ে চ্যানেল আইয়ের পর্দায় কনকচাঁপার গাওয়া এই গান প্রতিদিনই বেশ কয়েকবার প্রচার হবে বলে চ্যানেলে সূত্রে জানা যায়।
এদিকে একজন লেখক হিসেবে কনকচাঁপার আত্নপ্রকাশ ঘটে ২০১০ সালে অনন্যা প্রকাশনী থেকে প্রকাশিত ‘স্থবির যাযাবর’ বইটি প্রকাশের মধ্যদিয়ে। এরপর আরো দুটি বই তিনি পাঠককে উপহার দেন। সে দুটো বই হচ্ছে ‘মুখোমুখি যোদ্ধা’ ও ‘মেঘের ডানায় চড়ে’। তিন বছর পর আবারো কনকচাঁপা তার লেখা নতুন একটি স্মৃতিচারণ মূলক বই নিয়ে পাঠকের মাঝে হাজির হচ্ছেন। এবারের বইটির নাম ‘কাটা ঘুড়ি’। ‘প্রাণের বাংলা’ নামক একটি অনলাইন পোর্টলে আবিদা নাসরিন কলি’র বিশেষ অনুরোধে গত দুই বছর যাবত নিয়মিত স্মৃতিচারণ মূলক লেখা লিখে আসছেন। কলিরই অনুপ্রেরণায় তিনি সেই লেখাগুলো একত্রিত করে বই আকারে প্রকাশ করতে যাচ্ছেন এবারের একুশে বই মেলায়।
এরইমধ্যে বই প্রকাশের সব কাজ প্রায় শেষ বলে জানালেন কনকচাঁপা। এই বইটি প্রকাশ করছে যথারীতি অনন্যা প্রকাশনী।
সঙ্গীতাঙ্গন এর পক্ষ থেকে শুভকামনা। – মোঃ মোশারফ হোসেন মুন্না

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

%d bloggers like this: