রাগে যুগলবন্দিতে কামাল আহমেদ ও আফসানা রুনা…

গত ১০ আগস্ট সন্ধ্যা ৭টায় ধানমন্ডিস্থ ছায়ানট সংস্কৃতি ভবন প্রধান মিলনায়তনে বিশ্বকবি রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর ও বিদ্রোহী কবি কাজী নজরুল ইসলামের রাগভিত্তিক গান নিয়ে “রাগে যুগলবন্দি” শিরোনামে সঙ্গীতানুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়। অনুষ্ঠানে সঙ্গীত পরিবেশন করেন প্রখ্যাত রবীন্দ্র সঙ্গীত শিল্পী ও খ্যাতিমান মিডিয়া ব্যক্তিত্ব কামাল আহমেদ এবং বিশিষ্ট সঙ্গীত শিল্পী ও প্রশিক্ষক আফসানা রুনা। বিশ্বকবি রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর ও জাতীয় কবি কাজী নজরুল ইসলামের রাগাশ্রয়ী গান নিয়ে যুগলবন্দি অনুষ্ঠান বাংলাদেশে এটিই প্রথম। আর তাই রবীন্দ্র ও নজরুলের রাগাশ্রয়ী গান নিয়ে ছায়ানটে কামাল আহমেদ ও আফসানা রুনার সঙ্গীত সন্ধ্যায় গেলাম গান শুনবো বলে। কারণ রবীন্দ্র ও নজরুল সঙ্গীত আগে কখনো একই রাগে শুনিনি। বেশ মজার একটা কিছু হবে আগেই ভেবে রেখেছি।

শহর থেকে যখন সূর্যটা হারিয়ে গেলো নেমে এলো সন্ধ্যা ঢুকলাম ছায়ানটে। ঢুকেই দেখি রবিন্দ্র ও নজরুল দুই রাগের দুই শিল্পীই মঞ্চে উপস্থিত। গ্যালারিতে মাত্র কয়েকজন দর্শক বসে আছে। বাদ্যযন্ত্র গুলো বাদ্যকররা ঠিক করে নিচ্ছে। এই ফাঁকে কথা হলো কামাল ভাই আর আফসানা রুণার সাথে। খুশী হলেন সঙ্গীতাঙ্গন পরিবারের সদস্যদের দেখে। ভাব বিনিময় করে একসাথে ক্যামেরায় বন্ধি হলাম কয়েকটি ফোকাসে। তার পর কথা হলো যন্ত্রবাদক সুনিল দা’র সাথে, ও যন্ত্র আবিষ্কারক নাসির উদ্দিনের সাথে। ডান দিকে তাকাতেই দেখি সঙ্গীত শিল্পী শেলু বড়ুয়া। কথা হলো তার সাথে। এ সময় খুবই প্রসংসা করেন সে সঙ্গীতাঙ্গনের। কিছু ক্ষণ পরেই দেখি আমাদের সবার প্রিয় শিল্পী সৈয়দ আব্দুল হাদী। তার সাথে ও কথা হয় ভাব বিনিময় হয়। বর্তমান অবস্থা নিয়ে কিছুক্ষণ কথা হয়। তারপর শুরু হয় গানের অনুষ্ঠান।

কিছুক্ষণ আগেও গ্যালারিতে ছিল গুটিকয়েকজন। কিন্তু অনুষ্ঠান শুরু হতেই দর্শকদের উপস্থিতি ছিলো চোখে পড়ার মত। উপস্থিত দর্শকদের ভালোবাসায় সিক্ত হয়ে শিল্পী কামাল আহমেদ ও আফসানা রুনা গেয়ে শোনান ১৮টি গান। ছুটির দিনের সন্ধ্যায় দর্শকদের পিনপতন নীরবতায় গানের আয়োজন শুরু হলেও মোহনীয় আবেগ থাকতে থাকতেই আয়োজনের সমাপ্তি ঘটে।

রবীন্দ্রসঙ্গীত শিল্পী কামাল আহমেদের গাওয়া ইমনকল্যাণ রাগে বর্ষার গান ‘এসো গো জ্বেলে দিয়ে যাও প্রদীপখানি’ দিয়ে অনুষ্ঠান শুরু হয়। শিল্পী কামাল আহমেদের গাওয়া আরো উল্লেখযোগ্য ছিলো মল্লার রাগে ‘আজি ঝড়ের রাতে’, বেহাগ রাগে ‘আজি বিজন ঘরে নিশীত রাতে’ ও ‘ভরা থাক স্মৃতিসুধায়’, পিলু রাগে ‘ছায়া ঘনাইছে বনে বনে’ ও ‘আমার পরান যাহা চায়’, রামকেলি রাগে ‘যদি জানতেম আমার কিসের ব্যথা’ এবং সাহানা রাগের ‘নিশি না পোহাতে’।
নজরুল সঙ্গীতশিল্পী আফসানা রুনার পরিবেশনায় ছিলো ইমন মিশ্র রাগে ‘বসিয়া বিজনে কেন একা মনে’, মেঘমল্লার রাগে ‘বরষা ঐ এলো বরষা’, বেহাগ রাগে ‘নিশি নিঝুম ঘুম নাহি আসে’, ‘কেন দিলে এ কাঁটা যদি কুসুম’, পিলু রাগে ‘সুরে ও বাণীর মালা দিয়ে তুমি’ এবং বাগেশ্রী রাগে ‘হারানো হিয়ার নিকুঞ্জ পথে’ ও ‘চাঁদ হেরেছি চাঁদ মুখতার’।

সবশেষে শিল্পী কামাল আহমেদ ও আফসানা রুনা দ্বৈত কণ্ঠে ‘মোরা আর জনমে হংস-মিথুন ছিলাম’ (নজরুল সঙ্গীত) এবং ‘আকাশ ভরা সূর্যতারা’ (রবীন্দ্রসঙ্গীত) পরিবেশন করেন। সঙ্গীত শিল্পী কামাল আহমেদের বড় পরিচয় তিনি একজন মিডিয়া ব্যক্তিত্ব। তিনি বাংলাদেশ বেতারের বর্হিবিশ্বে কার্যক্রমের পরিচালক পদে কর্মরত রয়েছেন। সরকারী চাকুরীকে ছাপিয়ে তিনি সঙ্গীতে হয়েছেন ঋদ্ধ। সঙ্গীতের সব শাখাতেই তার বিচরণ রয়েছে। রয়েছে জাতীয় ও আন্তর্জাতিক খ্যাতি এবং স্বীকৃতি। কামাল আহমেদ ২০১৭ সালে ভারতের মহারাজা বীরবিক্রম বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক গৌতম কুমার বসু’র হাত থেকে ‘অদ্বৈত মল্লবর্মণ পদক’ ও ত্রিপুরার সাবেক মুখ্যমন্ত্রী মানিক সরকারের উপস্থিতিতে ‘বীর শহীদ ধীরেন্দ্রনাথ দত্ত পদক’ প্রাপ্ত হন । এছাড়াও তিনি ২০১৫ সালে বঙ্গবন্ধু গবেষণা ফাউন্ডেশন এ্যাওয়ার্ড এবং ২০১০ সালে সার্ক ক্যালচারাল সোসাইটি এ্যাওয়ার্ড অর্জন করেন। সর্বশেষ তিনি ২০১৭ সালে কানাডায় ৩১ তম ফোবানা (ফেডারেশন অব বাংলাদেশী এসোসিয়েশন ইন নর্থ আমেরিকা) সম্মেলনে বাংলাদেশ ও বহির্বিশ্বে বেতার সম্প্রচারে গুরুত্বপূর্ণ অবদানের জন্য ফোবানা পদক প্রাপ্তির বিরল সম্মান অর্জন করেন। শিল্পী আফসানা রুনা ছায়ানট ও নজরুল ইনস্টিটিউটের সঙ্গীত শিক্ষক হিসেবে দায়িত্ব পালন করে যাচ্ছেন। সারাদেশে সঙ্গীতের প্রশিক্ষক হিসেবেও তার প্রতিভাকে বিস্তৃত করেছেন। এছাড়া বাংলাদেশ বেতার, বাংলাদেশ টেলিভিশন ও মঞ্চেও রয়েছে তার সরব উপস্থিতি। দু’জনেরই কিছু কথা কিছু গানে মুগ্ধ হয়ে গান শুনতে শুনতে কখন যে অনুষ্ঠান শেষ হয়ে গেল বুঝতেই পারিনা। ভালো লাগা থাকতেই রাগাশ্রয়ী গানের অনুষ্ঠান সমাপ্ত হয়েগেল। অনুষ্ঠান কিন্তু শেষ তবে ভালো লাগাটা এখনো রয়ে গেছে। – মোশারফ হোসেন মুন্না

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

%d bloggers like this: