Press "Enter" to skip to content

ব্যান্ড ফেস্টে ছেলে দর্শক কাঁদালেন বাবার গান গেয়ে...

“উড়াল দেবো আকাশে” গানের কথা সবার পরিচিত। যে এই পঙক্তিটি পরিচিত করালো গানের জগতে সে আজ সত্যি সত্যি পৃথিবীর জমিন ছেড়ে উড়াল দিয়েছে আকাশে। এটাই যে বিধাতার বিধান। সেই উড়াল দেয়া মানুষটিকে নিয়ে আজ গাইলেন তার ছেলে। একটি মঞ্চ যার জন্য অধির আগ্রহে থাকতো হাজারো শ্রোতা। কিন্তু সেই শ্রোতা আছে নেই সেই গায়ক। তবে গান করবে দেশের অন্যতম জনপ্রিয় ব্যান্ড এলআরবি। থাকছেনা সেখানে বাচ্চুর পদচারনা। আজ ব্যান্ডের সঙ্গে নেই মূল কান্ডারি আইয়ুব বাচ্চু। কিন্তু মঞ্চে তিনি যেখানে দাঁড়াতেন, একদম মাঝের সেই জায়গাটায় রাখা হয়েছে তাঁর ব্যবহার করা গিটার আর মাইক্রোফোন। বাম পাশে দাঁড়িয়েছেন আইয়ুব বাচ্চুর ছেলে আহনাফ তাজওয়ার আর ডান পাশে বরাবরের মতো গিটার হাতে মাসুদ। আজ ছেলে গাইছে বাবার গান, ‘উড়াল দেব আকাশে’। কিন্তু কোনো আনন্দ নেই তাঁর মনে, তাঁর চোখ ভেজা। কণ্ঠ জড়িয়ে আসছে বারবার। মঞ্চের বাইরে যাঁরা দাঁড়িয়েছিলেন, তাঁকে দেখে তাঁদের অনেকেরই চোখ ভিজে যায়। দৃশ্যটি দেখা গেছে ‘৫ম চ্যানেল আই ব্যান্ড ফেস্ট ২০১৮’-এর মঞ্চে। গত শনিবার রাজধানীর তেজগাঁওয়ে চ্যানেল আই চত্বরে অনুষ্ঠিত হলো ‘৫ম চ্যানেল আই ব্যান্ড ফেস্ট ২০১৮ পাওয়ার্ড বাই নন্দন পার্ক’। উৎসবটি উৎসর্গ করা হয় সদ্য প্রয়াত কিংবদন্তী ব্যান্ড তারকা আইয়ুব বাচ্চুকে। এলআরবির পরিবেশনার ফাঁকে ব্যান্ডের ম্যানেজার শামীম আহমেদ এ সময় উপস্থিত অন্য ব্যান্ডগুলোর সদস্যদের মঞ্চে আমন্ত্রণ জানান। আইয়ুব বাচ্চুর স্মৃতির প্রতি শ্রদ্ধা জানিয়ে এলআরবির সঙ্গে সবাই একসঙ্গে গেয়েছেন ‘চলো বদলে যাই’ গানটি।

এর আগে সকালে ‘৫ম চ্যানেল আই ব্যান্ড ফেস্ট ২০১৮ পাওয়ার্ড বাই নন্দন পার্ক’ উদ্বোধন করেছেন আইয়ুব বাচ্চুর বন্ধুরা। যেহেতু দিনটি বিজয়ের মাসের প্রথম দিন। তাই সঙ্গে আরও ছিলেন স্বাধীন বাংলা বেতারকেন্দ্রের কয়েকজন কণ্ঠযোদ্ধা। ছিলেন ফয়সাল সিদ্দিকী বগি, ফোয়াদ নাসের বাবু, হায়দার হোসেন, তপন চৌধুরী, পার্থ বড়ুয়া, ফেরদৌস ওয়াহিদ, ফকির আলমগীর, রুমী, শহীদ মাহমুদ জঙ্গী, মামুনুর রশীদ প্রমুখ।
অনুষ্ঠানে বন্ধুকে স্মরণ করে কুমার বিশ্বজিৎ বলেন, আইয়ুব বাচ্চুর সঙ্গে আমার সম্পর্কটা অনেক দিনের। একটি মানুষ যাত্রাতেও গান করেছেন, আবার হোটেলেও গেয়েছেন। প্রাচ্য এবং পাশ্চাত্য দুটিই ছিল তাঁর পরিবেশনায়। অনেক মানবিক এবং সম্মোহনী শক্তি ছিল। একাগ্রতা ও দায়িত্ববোধ ছিল তাঁর মাঝে। খুব পরিশ্রমী ছিলেন। ঘুম ছাড়া বাকি পুরো সময়টাতেই তাঁকে গিটার নিয়ে প্র্যাকটিস করতে দেখেছি। ফেরদৌস ওয়াহিদ বলেন, আইয়ুব বাচ্চু তাঁর সুর ও কাজের মাঝে বেঁচে থাকবেন। তপন চৌধুরী বলেন, আইয়ুব বাচ্চুকে স্মরণ করছি। এই আয়োজন সফল হোক। শহীদ মাহমুদ জঙ্গী বলেন, বাচ্চু শূন্যস্থান পূরণ করতে করতে আমাদের ছেড়ে চলে গেছেন। পার্থ বড়ুয়া বললেন, তিনি ছিলেন আমার অভিভাবক। ব্যান্ড ফেস্টকে আরও বড় পরিসরে আয়োজন করার অনুরোধ করেন তিনি। ৫ম চ্যানেল আই ব্যান্ড ফেস্ট ২০১৮ পাওয়ার্ড বাই নন্দন পার্ক’ উদ্বোধন করেছেন আইয়ুব বাচ্চুর বন্ধু আর স্বাধীন বাংলা বেতারকেন্দ্রের কয়েকজন কণ্ঠযোদ্ধা। চ্যানেল আইয়ের পরিচালক ও বার্তা প্রধান শাইখ সিরাজ বলেন, আজ ব্যান্ড ফেস্টে সবাই আছেন, শুধু একজন নেই। ইংরেজি দুটি অক্ষরে তাঁর পরিচয়। এবি। পেছনে তাঁর সাদাকালো ছবি, সামনে গিটার। তিনি বলেছিলেন ব্যান্ডের জন্য একটি দিন দরকার। আজ ব্যান্ডের সবাই উপস্থিত। কেউ তাঁকে ভোলেনি। এই ব্যান্ড ফেস্ট হোক সঙ্গীতের শক্তি।

এই উৎসবে অংশ নেওয়া সব কটি ব্যান্ড নিজেদের গানের পাশাপাশি গেয়েছে আইয়ুব বাচ্চুর গান। দলছুটের বাপ্পা মজুমদার মঞ্চে আসেন মানাম আহমেদকে নিয়ে। বাপ্পা মজুমদার বলেন, কখনো দর্শকদের সামনে বাচ্চু ভাইর গান গাইনি। তিনি শুরুতেই গাইলেন আইয়ুব বাচ্চুর ‘রুপালি গিটার’ গানটি। তবে আইয়ুব বাচ্চুর জনপ্রিয় কয়েকটি গান থেকে কিছু কথা নিয়ে নতুন একটি গান তৈরি করেছে জলের গান। যেহেতু উৎসব উপলক্ষেই গানটি তৈরি, তাই গানটি গেয়ে শোনান জলের গানের রাহুল আনন্দ। গানের শেষ লাইনটা ছিল ‘এই পাখিটার ডানা ছিল গিটার’। সাধারণত মঞ্চে আইয়ুব বাচ্চু যেখানে দাঁড়াতেন, একদম মাঝের সেই জায়গাটায় আজ রাখা হয় তাঁর ব্যবহার করা গিটার। ৫ম চ্যানেল আই ব্যান্ড ফেস্ট ২০১৮ পাওয়ার্ড বাই নন্দন পার্ক’ আয়োজনে অংশ নিয়েছে ১৭টি ব্যান্ড। ছিল উচ্চারণ, ডিফারেন্ট টাচ, অবসকিউর, তিরন্দাজ, ম্যাট্রিকেল, ফিডব্যাক, জলের গান, আর্টসেল, উচ্চারণ, সমীকরণ, দলছুট, এলআরবি। উৎসব উদ্বোধন করা হয় সকাল সাড়ে ১০টায়। বিকেল ৫টা পর্যন্ত মঞ্চে ছিল শুধু গান আর গান। অনুষ্ঠানটি সরাসরি সম্প্রচার করেছে চ্যানেল আই। আয়োজনটির পরিচালক অনন্যা রুমা। উপস্থাপনা করেছেন অপু মাহফুজ, সাফি আহমেদ ও দিলরুবা সাথী। সঙ্গীতাঙ্গন এর আশা এই যে এবি যেন এবাবেই বেঁচে থাকে তার সৃষ্টির মাঝে। – মরিয়ম ইয়াসমিন মৌমিতা

Be First to Comment

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

%d bloggers like this: