Press "Enter" to skip to content

‘এক জীবনে অনেক জীবন’ তথ্যচিত্রে কাঙালিনী সুফিয়া…

– রোদেলা জয়ী।
‘কোনবা পথে নিতাইগঞ্জে যাই’ এবং ‘বুড়ি হইলাম তোর কারনে’ এমন অনেক লোকজ গানের নন্দিত লোকসঙ্গীত শিল্পী কাঙ্গালিনী সুফিয়া। সেই কিশোরী বয়সে কন্ঠে তোলা লোকজ গানের সুর আজ এ বৃদ্ধা বয়সেও অম্লান। ১৯৬১ সালে রাজবাড়ী জেলায় জন্ম নেওয়া ১৪ বছরের এক কিশোরী এক সুরের বন্দনায় জয় করে নেয় দেশের গান প্রিয় মানুষের মন। সেই থেকেই তিনি দেশ বিদেশের মানুষের কাছে এক অবিস্মরণীয় নাম। তিনি গান গেয়ে যেমন পেয়েছেন মানুষের ভালোবাসা তেমনি পেয়েছেন জাতীয় পুরস্কার সহ অসংখ্য সম্মানী পুরস্কার।

গানের সাথে বেশ কিছু দিন মেতেছিলেন ফোক গানের শিল্পী কাঙ্গালিনী সুফিয়া। টিভি শো, ওপেন কনসার্ট ও মিউজিক ভিডিও করেছেন অনেক। দেশের মানুষ, ঘঠমান রাজনীতি, জনসচেতনতা সহ বিভিন্ন গানে দেখা গেছে তাকে। কিছুদিন পূর্বে গুরুতর অসুস্থাবস্থায় হাসপাতালে ভর্তি হয়েছিলেন প্রখ্যাত ফোক সঙ্গীতশিল্পী কাঙ্গালিনী সুফিয়া।

কাঙ্গালিনী সুফিয়া যিনি মাটির সুরকে লালন করেই আজও বাঙ্গালীর শিকড় সন্ধানী গানে নিজেকে সত্যিকার বাংলা গানের ভুবনে বাঁচিয়ে রেখেছেন। অন্যদিকে সাধক আব্দুর রহমান বয়াতি গানই ছিল তার জীবন সংসার। গানকে ভালোবেসে একতারা-দোতারা হাতে নিয়ে ছুটেছিলেন দেশের এ প্রান্ত থেকে অন্যপ্রান্ত। সঙ্গীতকে সঙ্গী করেই শেষ করেছেন তার সাধের জীবন।

কেমন আছেন লোকগানের বিশিষ্ট শিল্পী কাঙালিনী সুফিয়া ? তিনি কী সুস্থ হয়েছেন ? আর্থিক সংকট কেটেছে ? – ভক্তমাত্রই এসব প্রশ্নের উত্তর জানতে চান। সংগ্রামী এই মানুষটির জীবনের গল্প নিয়ে তৈরি হয়েছে তথ্যচিত্র ‌’কাঙালিনী: এক জীবনে অনেক জীবন’। বাংলাঢোল প্রযোজিত তথ্যচিত্রটি আজ ১ মে আন্তর্জাতিক শ্রমিক দিবসে উন্মুক্ত করা হয়েছে।

সোমেশ্বর অলির চিত্রনাট্য ও আল আমিন রংপুরিয়ানের পরিচালনায় ৩০ মিনিট ব্যাপ্তির তথ্যচিত্রে উঠে এসেছে জীবন্ত কিংবদন্তি গায়িকা কাঙালিনী সুফিয়ার সংগ্রামী জীবনের অজানা গল্প। তারা বলেন, ‌যার গান শুনে বিমোহিত কোটি কোটি শ্রোতাদর্শক, স্ব নামে যিনি এতো বিখ্যাত, সেই মানুষটির মনে কেন স্বস্তি নেই ? আমরা শুধু জানি, আমাদের সময়ে, একই আলো বাতাসে বেঁচে থাকা এই মহীয়সী নারীর কাছে আমাদের অনেক ঋণ। কাঙালিনী সুফিয়ার এই তথ্যচিত্র কঠিন সময়েরই দগদগে এক প্রামাণ্য দলিল।

১ মে আন্তর্জাতিক শ্রমিক দিবসে ‘কাঙালিনী: এক জীবনে অনেক জীবন’ তথ্যচিত্রটি উন্মুক্ত করা হয়েছে বাংলাফ্লিক্স, রবিস্ক্রিন, এয়ারটেলস্ক্রিন, টেলিফ্লিক্স ও বিডিফ্লিক্স অ্যাপগুলোতে। এখান থেকে দর্শকরা বিনামূল্যে এটি উপভোগ করতে পারবেন।

লিংক:-

বাংলাফ্লিক্স : http://banglaflix.com.bd/play/EBTdettlhHE

টেলিফ্লিক্স: http://teleflix.com.bd/play/EBTdettlhHE

রবিস্ক্রিন: http://robiscreen.com/play/EBTdettlhHE

এয়ারটেলস্ক্রিন: http://www.airtelscreen.com/play/EBTdettlhHE

বিডিফ্লিক্স: https://www.bdflixlive.com/play/EBTdettlhHE

Be First to Comment

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *