Press "Enter" to skip to content

টেলি সিনে এ্যাওয়ার্ড ২০১৯ পেলেন আঁখি আলমগীর…

– সালমা আক্তার।
প্রিয় মূখ, প্রিয় কন্ঠ, আঁখি আলমগীর সময়ের সাথে চলতে চলতে, কন্ঠ ও সুরের সাধনায় জয় করে নিয়েছে দর্শকদের ভালোবাসা ও বিশ্বাস। নিজের ভেতর তৈরি করেছেন সংগীতের মহা ভুবন, কর্মের তপস্যায় তিনি লাভ করেছেন পুরষ্কার অর্জনের গৌরব। ‘টেলি সিনে আ্যাওয়ার্ড ২০১৯’ র কোলকাতা নজরুল মঞ্চে আ্যাওয়ার্ড নিয়েছেন গতকাল ১ জুন বিকেল পাঁচটায় বেষ্ট প্লেব্যাক ফিমেল সিঙ্গার বাংলাদেশ রূপে। টেলি সিনে আ্যাওয়ার্ড দেখতে দেখতে পার করেছেন দীর্ঘ ১৮ বছর। টেলি সিনে আ্যাওয়ার্ড বিশ্বাস করে পর্দার পিছনে ও সামনের আর্টিস্টদের জন্য কৃতিত্ব ও সম্মান দেবার উদ্যোগ বাংলা ফিল্ম ইন্ডাস্ট্রির। বাংলা গানের প্রাণের মানুষ, সংগীত পিয়াসিদের আনন্দ বিনোদনের মানুষ যাকে দর্শক শ্রোতা এক নামেই চেনে তিনি আঁখি আলমগীর। জন্মস্থান ঢাকা, তিনি মূলত গায়িকা, অভিনেত্রী, উপস্থাপিকা নামে খ্যাত। সংগীতকে ভালোবাসা তাঁর বড় প্রত্যাশা সময় অসময়ে বসে যান সুরের সাধনা নিয়ে। জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার অর্জন করেন শিশু শিল্পী হিসেবে ১৯৮৪ সালে, ‘ভাত দে’ চলচ্চিত্রে কিশোরী জরি চরিত্রে অভিনয় করে। সংগীত সাধক হিসেবে, অত্যন্ত নিষ্ঠার সাথে সুরের আরাধনায় নিজেকে সমর্পণ করেন। গানের গহীনে জীবন খুঁজে পান তিনি, গানের সাধনায় তিনি সামনে এগিয়ে যেতে চান সব সময়, তাঁর চিন্তা চেতনায় সব সময় কাজ করে ভালো কিছু উপহার দেয়া শ্রোতাদের। বিভিন্ন চলচ্চিত্রে তিনি প্লেব্যাকে কাজ করেন, বিদ্রোহী বধূ, শুধু তুমি, কন্যা দান, নির্মল, সত্যের মৃত্যু নেই, টাইগার, মরণ কামড়, মা বাবা সন্তান ও একটি সিনেমার গল্প শিরোনামের অসংখ্য চলচ্চিত্রের গান করেন। প্রথম চলচ্চিত্রে প্লেব্যাক করেন বিদ্রোহী বধূ ১৯৯৪ সালে। গানের টানে এদিক ওদিক ছুটে চলা তাঁর পছন্দ, সৃজনশীল কর্মের মাধ্যমে নিজেকে জড়িয়ে রেখে খুঁজে ফিরেন তিনি সকল আনন্দ। ভালোবেসেন শ্রোতাদের মন জয় করতে সুরেলা সংগীত সৃষ্টিতে, বিশ্বাস করেন কর্মই মানুষকে আজীবন বাঁচিয়ে রাখেন। আজন্ম প্রত্যাশা, ভালো কিছু করে যাওয়া বাংলা গানের জন্য, দর্শক শ্রোতাদের জন্য। হৃদয়ের গহীনে অনুভব করেন তিনি শিল্প কর্মকে, কর্মকে ভালোবেসে হারাতে চান সংগীত চর্চায়। কর্মই মানুষকে আনন্দের সাধ দিতে, সেই কর্মকে ভালোবেসে আঁখি আলমগীর জীবনের বাকিটা পথ চলতে চান ভক্ত শ্রোতাদের হাসিভরা মূখ, খুশি ভরা হৃদয় দেখে।

Be First to Comment

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *