Press "Enter" to skip to content

জিতলেও টাইগার হারলেও টাইগার…

– মোশারফ হোসেন মুন্না।

জিতবেই জিতবেই, এই বার এই বার,
টাইগার টাইগার, টাইগার টাইগার
উঠুক না রান তাদের, যত ওঠার
ক্ষমতা আছে তো, তাদের রোখার,
টাইগার টাইগার, জিতবেই এইবার। ২

তোমাদের নিয়ে স্বপ্ন দেখে
বাংলার জনগন,
তোমরা বিজয় আনবে ছিনিয়ে
ভাবে প্রতিক্ষণ।
তোমাদের প্রতি এতো আবেগ
এতো ভালোবাসা
তোমরাই জিতবে খেলো এবার
পূর্ণ করো আশা।

তোমরা দূর্বার দামাল ছেলে
তোমরা সাহসী,
তোমরাই পারবে জয়ের মালা
আমরা বিশ্বাসী।
তোমাদের দিকে তাকিয়ে আছে
আজ সারা দেশবাসী
খেলো টাইগার সাহস নিয়ে
আমরা সাথে আছি।।

আমরা স্বাধীন দেশের বীর বাঙ্গলী। বিজয় দিয়ে আমাদের শুরু। এই বিজয়ের পতাকা আজ স্বাক্ষী দেয় আমরাই পারবো। আমরাই পারি। আমরাই পেড়েছি। জীনের কথা ভাবিনি ভেবেছি দেশের কথা দেশের মানুষের কথা। ভেবেছি বিজয়ের কথা। স্বপ্ন দেখেছি স্বাধীন দেশের। আমরা স্বপ্ন পূরণে বিশ্বাসী। বিশ্বকাপ ক্রিকেটে আছে আমাদের সেই স্বাধীন দেশের বীরের সন্তান। যাদের বুকে আছে সাহস আর মনে আছে বল। আমাদের বাংলার টাইগার দল। আমরা বিশ্বাস করি টাইগার জিতবেই। এবং তারা পারবেই। এই বিষয় নিয়ে কথা হয় সঙ্গীত জগৎ এর শ্রেষ্ঠ কিংবদন্তী সঙ্গীত শিল্পী সাবিনা ইয়াসমিন এর সাথে। ক্রীকেট নিয়ে তার কাছে প্রশ্ন ছিলো নানা রকম। তিনি খুব সুন্দর করে বুজিয়েছেন আমরা বাঙ্গালী আমরা জিতলেও টাইগার হারলেও টাইগার। শিল্পীকে প্রশ্ন করা হয় খেলা দেখেন কিনা। তিনি জানান সব খেলা না দেখলেও আমাদের টাইগাদের খেলা তিনি মিস করেন না। তিনি বলেন, ছোট বেলা থেকেই আমার দেশের প্রতি দেশের মানুষের প্রতি ভালোবাসা দরদ মনে নাড়া দিয়ে উঠতো। সুখে দুঃখে তাদের পাশে থাকতে মন চাই তো। দেশের মানুষ ভালো কিছু করলে গর্ব হতো। আনন্দ লাগতো। তখন থেকেই যেহেতু
ভালোবাসাটা আছে তো সেই ভালোবাসা আমার মনে এখনো কাজ করে। খুব আগ্রহ নিয়ে খেলা দেখি আর তাদের বিজয়ের জন্য উৎসুক হযে থাকি। আমি জানি আমার নিজের থেকে যে টাইগার দল খুব ভালো খেলে। এক সময় টাইগারকে কেউ চিনতো না। বিশ্ব মানচিত্রে যখন বাংলাদেশ ছিল অপরিচিত একটা দেশ তখন ক্রিকেট দল তাদের অবস্থান ছিলো খুবই সুচনীয়। সেখান থেকে আজ টাইগারদের কত উন্নতি হয়েছে। আমি বলবো আমার দেশ সেরা দেশ। আমাদের টাইগার টিম সেরা টিম। আমরা পারি অস্ট্রেলিয়ার মতো দেশকে হারাতে। আমরা ও পারি শ্রীলংকা, পাকিস্তান, ভারতের মতো দেশকে হারাতে। আমরা এখন পারি বিশ্বকাপ ক্রিকেটে সেমিফাইনাল খেলতে। যদি এতদূর আমাদের ছেলেরা এগিয়ে যেতে পারে তাহলে আমি বলবো আমাদের টাইগারবাহিনী ফাইনালও খেলতে পারবে। বিজয়ের পতাকা ছিনিয়ে আনার ক্ষমতা আমাদের টাইগারদের আছে। আমাদের দলে যাদের কৃতিত্ব না বললেই নয় যেমন আগে ছিলো মোঃ আকরাম, রফিক, আশরাফুল, তাদের থেকেই বাংলাদেশ পরিচিতি লাভ করে। এখন যারা খেলছেন তাদের মধ্যে মাশরাফি, তামিম ইকবাল, সাকিব আল হাসান, মুশফিকুর, মাহমুদুল্লাহ রিয়াদ, মোস্তাফিজুর রহমান খুব ভালো খেলে তারা। শক্তিশালী দেশকে হারিয়েছে এই টাইগারবাহিনী। আমরা আশা করি এবারের বিশ্বকাপ আমরাই জিতবো। কারণ সেই আশা আমরা রাখতে পারি। আমাদের ছেলেদের খেলাই সেটা প্রমাণ করে বার বার। তাদের এখন উৎসাহ দরকার। আমাদের মুক্তিযুদ্ধের সময় মুক্তিবাহিনীকে গান আর বিভিন্ন রম্যরস দিয়ে বিনোদন নিয়ে উৎসাহ দেওয়া হয়েছিলো। আমাদের টাইগাদেরকে আমরা উৎসাহ দিবো। দুই ম্যাচে হেরেছে তা তে কি হয়েছে, অন্যগুলোটাতে জিতবেই। কিন্তু আজকাল ফেসবুকে কিছু মানুষ আছে স্যাটাস লিখে টাইগাদের বিরুদ্ধে। অমুখ দেশ এতো রান করছে টাইগার পারবেনা। টাইগার টেনেটুনে দুইশত করলেই বেশি। টাইগাররা কোন খেলোয়ারই না। আসলে যারা এই ধরনের পুষ্ট লিখেন তারা প্রকৃত পক্ষে দেশকে ভালোবাসেন না। মা যেমন সন্তান খারাপ হলেও বলতে পারেন না তেমনি টাইগার দল কোথায় কোথায় খারাপ করলো সেটাও আমরা ফেসবুকে স্ট্যাটাস দিয়ে বলতে পারিনা। আমরা চিন্তা করবো কি করে আরো ভালো খেলতে পারে। সাধারণ মানুষ তাদের স্ট্যাটাস দিয়ে খেলোয়াদেরই না দলের ভক্তদেরও বিভ্রান্তি তৈরি করে। পরিশেষে এটাই বলবো টাইগার আমাদের দল আমাদের গর্ব। তাদের ভালো কামনা করাই আমাদের কাম্য। সত্যি বলতে মানুষ কতটা মহান হয় তা তাদের কথায়ও কিছু প্রকাশ পায়। কিংবদন্তী শিল্পী সাবিনা ইয়াসমিন একজন মহান মনের মানুষ। তার কথার মাধ্যেমে বুজতে পারলাম দেশ প্রেম কতটা কাজ করে তার মধ্যে।
আমরাও বিশ্বাষ করি টাইগার জিতবে। সেই মনোবল তাদের আছে। বাংলাদেশী ক্রিকেটার টাইগার বিজয়ের পতাকা উড়িয়ে হাসি মুখে দেশের মাটিতে পা রাখবে সঙ্গীতাঙ্গন এরও একই প্রত্যাশা। সবাই সুস্থ ও সুন্দর থাকুন। খেলা দেখুন উৎসাহ দিন, সঙ্গীতাঙ্গন এর সাথেই থাকুন।

More from সুরের ভূবনMore posts in সুরের ভূবন »

Be First to Comment

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *