Press "Enter" to skip to content

ইন্দিরা গান্ধী কালচার সেন্টারে অনুষ্ঠিত হলো লালন গানের মেলা…

– সালমা আক্তার।
দেখার ওপারে দেখার নাম দিব্য জ্ঞান, সে দিব্য জ্ঞানের আলোকে আলোকিত হয়ে জ্বলে উঠেছিল যে কন্ঠ সেকন্ঠ দেহ তত্ত্বের কবি লালন সাঁই। বাউল সম্রাট লালন ফকিরের নাম নিলে যে মূখটি ভেসে উঠে তিনি আমাদের প্রিয় মুখ, স্বনামধন্য কিংবদন্তি ফরিদা পারভীন। ইন্দিরা গান্ধী কালচার সেন্টারে আয়োজন করা হয়েছিল ফরিদা পারভীনের গানের মেলা, মুক্ত আকাশের নীচে, গুরুতত্ত্ব, দেহ তত্ত্ব ও সাধন ভজনের গানে শ্রোতাদের আসর মাতালেন ফরিদা পারভীন। ফরিদা পারভীন গুরুভক্তি পূর্ণ দরদি কন্ঠে আকুতি তুললেন, পারাপারের খেয়ায় চড়তে, আমি অপার হয়ে বসে আছি, ওহে দয়াময়। ৬ই সেপ্টেম্বর সন্ধ্যা ৬:৩০ আয়োজন করা হয়েছিল অনুষ্ঠানটি। সাঁই জ্বি লালন ও ফরিদা পারভীন ভক্তদের মনে, গানের তালে তালে জীবন্ত হয়ে ধরা দিয়েছিল দেহ তত্ত্বের অমিয় ধারা। গভীর শ্রদ্ধা ভরে ভেসে উঠা ধ্বনি গুরুভক্তি রসে ছেয়ে ছিল। জাত, ধর্ম, বর্ণ কালের উর্ধ্বে যে গান পরমতত্ত্বের অনুসন্ধান দেয়, সে গানের নাম লালনগীতি। দমের পাখি কেমনে আসে যায়, তাঁরই সন্ধান করেন শিল্পী ফরিদা পারভীন। তবলা, বাঁশি ও বেহালার সুরের মূর্ছানায়, গেয়ে উঠেন আত্মতত্বের গান। ধ্যানে জ্ঞানে খুঁজে নিতে চান পরম ধন, পরমকে। যার বসতি অন্তরে নিরন্তর। অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন দেশের বিশিষ্ঠ ব্যক্তিবর্গ ও সবার জন্য উম্মক্ত।

Be First to Comment

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *