Press "Enter" to skip to content

আইয়ুব বাচ্চুর রুপালী গিটার এখন পূজামণ্ডপে!…

– কবি ও কথাসাহিত্যিক রহমান ফাহমিদা।
এই রুপালী গিটার ফেলে একদিন
চলে যাব দূরে বহুদূরে।
কিংবদন্তি সঙ্গীত শিল্পী আইয়ুব বাচ্চু তাঁর রুপালী গিটার ছেড়ে চলে গেছেন দূর থেকে বহুদূরে কিন্তু তাঁর সেই রুপালী গিটারের আদলে গিটার তৈরি করে স্থাপিত করা হচ্ছে বিভিন্ন জায়গায়, তাঁকে শ্রদ্ধা ও ভালোবাসার নিদর্শন স্বরূপ! যেমন- সর্ব প্রথম চট্টগ্রাম নগরের প্রবর্তক মোড়ের গোলচত্বরে আইয়ুব বাচ্চুর রুপালী গিটারের আদলে একটি প্রতিকৃতি বসানো হয়েছে। অডিও ইনক নামে একটি প্রতিষ্ঠান কাজটি করেছে। গিটারটির উচ্চতা ১৮ ফুট। এর বেসমেন্টের উচ্চতা ৪ ফুট। চারিপাশে আছে পানির ফোয়ারা। শত শত মানুষ এই গিটার দেখছে আর শ্রদ্ধা ভরে স্মরণ করছে জনপ্রিয় শিল্পী আইয়ুব বাচ্চুকে।

এবার রাজশাহীর টাইগার সংঘ শারদীয় দুর্গোৎসবের পূজামন্ডপের সাজসজ্জায় ব্যতিক্রম এক আয়োজন করেছে। এবার তারা তাঁদের পূজামণ্ডপের জন্য দেশের কিংবদন্তি গায়ক আইয়ুব বাচ্চুর স্মরণে তাঁর রুপালী গিটার, বিখ্যাত হ্যাট ও সানগ্লাস বানিয়েছেন। টাইগার সংঘের আয়োজকগণ মনে করেন যে, এই জনপ্রিয় শিল্পী মারা গেছেন ঠিকই কিন্তু তাঁর স্মৃতি রয়ে গেছে শত শত দর্শক শ্রোতার মাঝে! সে তাঁদের কাছে এখনো বেঁচে আছেন তাঁর কাজের মাধ্যমে। সব সময়ই টাইগার সংঘ পূজামণ্ডপের সাজসজ্জায় ভিন্ন কিছু তুলে ধরেন। এবারও তার ব্যতিক্রম হয়নি। এবার পূজামণ্ডপের পুরো প্যান্ডেল সাজানো হয়েছে আইয়ুব বাচ্চুকে ঘিরে। মঞ্চের সঙ্গে রয়েছে ৫৮ ফুট লম্বা ও ১৯ ফুট চওড়া রুপালী গিটার। তার সঙ্গে রয়েছে ১০ ফুট উঁচু ও ২৬ ফুট চওড়া আইয়ুব বাচ্চুর বিখ্যাত হ্যাট। হ্যাটের সাথে সামঞ্জস্য রেখে বানানো হয়েছে সানগ্লাস।
সৃষ্টির সেরা জীব মানুষকে আল্লাহ্‌ পাঠিয়েছেন পৃথিবীতে কম বেশি প্রথিভাবান করে। তাঁর মধ্যে কিছু মানুষ আছেন এমনি প্রতিভাবান যে, তাঁরা পৃথিবী থেকে চলে যাওয়ার পরেও তাঁদের কাজের মাধ্যমে সবার মনে বেঁচে থাকে। তেমনি একজন মানুষ ছিলেন আইয়ুব বাচ্চু! যার কারণে জাতি, ধর্ম সবকিছুর ঊর্ধে সে বিরাজ করছেন সবার মাঝে। যে কোনো শিল্পী তাঁর কাজের মাধ্যমে সব ধর্মের মানুষের কাছেই যে প্রিয় হয়ে উঠতে পারে তাঁর প্রমাণ পূজামণ্ডপে স্থাপিত আইয়ুব বাচ্চুর রুপালী গিটার, হ্যাট ও সানগ্লাস। তাই তো কিংবদন্তি এই শিল্পী চলে যাবার সময় সবশ্রেণীর মানুষের ভালোবাসা ও শ্রদ্ধায় সিক্ত হয়েছেন। আজ চট্টগ্রামের শত শত মানুষ ভীর করে রাস্তায় দাঁড়িয়ে দেখছে তাঁর সেই ফেলে যাওয়া রুপালী গিটারের আদলে তৈরি করা সেই গিটার। আর সেইসব মানুষ নিরবে চোখের পানি ফেলে স্মরণ করছে তাঁদের প্রিয় শিল্পী আইয়ুব বাচ্চুকে। আমরাও তাঁকে স্মরণ করছি। তাই সঙ্গীতাঙ্গনের পক্ষ থেকে কিংবদন্তি আইয়ুব বাচ্চুর জন্য রইল অনেক শ্রদ্ধা ও ভালোবাসা।

Be First to Comment

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *