বাংলা ব্যান্ডের শ্রুতিমধুর গীতিকার লতিফুল ইসলাম শিবলী…

বাংলা ব্যান্ডের জনপ্রিয় খ্যাতিমান গীতিকার ও সুরকারের নাম লতিফুল ইসলাম শিবলী। বহুমাত্রিক প্রতিভার অধিকারী বাংলা সঙ্গীতের নব্বই দশকের জনপ্রিয় এই গীতিকারের জন্ম ১লা বৈশাখ কিংবা ১৪ই এপ্রিল ১৯৬৯ সালে। বাংলা ব্যান্ডের সবচেয়ে স্বর্ণালী সময় অতিবাহিত হয়েছে ১৯৯০ থেকে ২০০০ সাল পর্য়ন্ত এবং সেই সময়ের যত জনপ্রিয় গান রয়েছে তার মধ্যে অধিকাংশ গানের স্রষ্ট্রাই হলেন লতিফুল ইসলাম শিবলী। তার লিখা গানে জনপ্রিয় হয়েছে অনেক ব্যান্ড দল ও তারকা খ্যাতি পেয়েছেন অনেক নবীন শিল্পী।

গানের কথায় সুর ও যান্ত্রিক সংমিশ্রনে যেন হৃদয়ে এক সুরের ঝংকার বয়ে দেয় এবং হৃদয়কে প্রানোদোলিত করে তোলে। তাঁর লেখা অসংখ্য জনপ্রিয় গানের মধ্যে রয়েছে – জেল থেকে বলছি – নগরবাউল, তুমি আমার প্রথম সকাল – তপন চৌধুরী ও শাকিলা জাফর, কষ্ট পেতে ভালবাসি – আইয়ুব বাচ্চু, কত কষ্টে আছি – জেমস, পালাবে কোথায় – জেমস, মাকে বলিস – আইয়ুব বাচ্চু, কষ্ট কাকে বলে – আইয়ুব বাচ্চু, একটা চাকুরী হবে, চাঁদমামা – আইয়ুব বাচ্চু, কীভাবে কাঁদাবে তুমি (যতটা মেঘ হলে বৃষ্টি নামে), পলাশীর প্রান্তরে – মাইলস, হাত বাড়ালে বন্ধু হবো – টিপু, মানুষ বড় একা – আইয়ুব বাচ্চু, ও আমার প্রেম – আইয়ুব বাচ্চু, কষ্ট পেলে নষ্ট হবো কেন – আইয়ুব বাচ্চু, হ্যালো ঢাকা – মাইলস, মাঝে কিছু বছর গেল – সুমনা হক, নিঝুম রাতের তারার মেলায় – সুমনা হক, বিষন্ন হুইসেল – শুভ্র দেব, দূরে কোথাও পালাবা ঠিকানা নেই – ঝলক, যত দূর যত পথ – আজম খান, ‘Zzমি কোন
দিকে ফেরাবে চোখ – শাফিন আহম্মেদ, Pvuদের সাথে থেকে মধ্যরাতে – শেখ ইসতিহাক, পায়ের আওয়াজ শুনি –সোলস, নিঃসঙ্গতা – হামিন আহমেদ, তুমি আর কারো নও – চন্দন, একাকী আকাশের সন্ধ্যাতারা – নকীব খান, মনে পড়ে গেল – নিলয় ও ফাহমিদা নবী, সহ আরো অনেক গান।

বাংলা সঙ্গীতের দাপুটে গানের গীতিকার লতিফুল ইসলাম শিবলীর গানের কথা আজও শ্রোতা হৃদয়ে কালের সাক্ষী হয়ে আছে। তার গানের কথায় আজও বাংলার বিভিন্ন স্থানে বিভিন্ন অনুষ্ঠানে শ্রোতা হৃদয়ে সাড়া জাগানোর অবলম্বন। দীর্ঘায়ূ কামনা করি এই গীতিকারের এবং আরো শ্রোতাপ্রিয় গানের সৃষ্টি করে শ্রোতা হৃদয়ে বেঁচে থাকুক প্রজন্ম থেকে প্রজন্মে। – রবিউল আউয়াল…

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

%d bloggers like this: